kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

আইপিএলে শিখর ধাওয়ানের ইতিহাস!

অনলাইন ডেস্ক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ১০:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আইপিএলে শিখর ধাওয়ানের ইতিহাস!

ছবি: সেঞ্চুরির পর শিখর ধাওয়ান।

টানা দু’টি ম্যাচে সেঞ্চুরি। আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবার। আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে দলকে জিতিয়েছিলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের বাঁ-হাতি ওপেনার শিখর ধাওয়ান। আর গতকাল মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে দুরন্ত সেঞ্চুরি করে নজির গড়লেন তিনি। যদিও এদিন হেরে যায় তার দল দিল্লি।

ধাওয়ানের চওড়া ব্যাটে ভর করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের সামনে ১৬৫ রানের টার্গেট দেয় দিল্লি ক্যাপিটালস। ১০৬ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে শেষ পর্যন্ত অপারিজত থাকেন দিল্লির এই বাঁ-হাতি ওপেনার। অর্থাৎ ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে ‘ক্যারি দ্য ব্যাট’ করে টি-২০ ক্রিকেটে নজির গড়লেন ধাওয়ান। তার চওড়া ব্যাটে ৫ উইকেটে ১৬৪ রান তোলে দিল্লি ক্যাপিটালস।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বোলারদের বিরুদ্ধে এদিন শুরু থেকই আক্রমণাত্মক ইনিংস খেলেন ধাওয়ান। হাফ-সেঞ্চুরি করেন মাত্র ২৮ বলে আটটি চার ও একটি ছক্কা মেরে। অন্য প্রান্তে যখন কোনও ব্যাটসম্যান বেশিক্ষণ ক্রিজে কাটাতে পারেননি, তখন তিনি স্বমহিমায় ব্যাট করে গেলেন। ৫৭ বলে এক ডজন বাউন্ডারি ও ৩টি ওভার বাউন্ডারি মেরে সেঞ্চুরিতে পৌঁছান ধাওয়ান। শেষ পর্যন্ত ৬১ বলে ১২টি চার ও ৩টি ছয় মেরে ১০৬ রানে অপরাজিত থাকেন দিল্লির এই বাঁ-হাতি ওপেনার। স্টাইক-রেট ১৭৩.৭৭।

এর আগে গত শনিবার শারজায় চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধেও অপরাজিত সেঞ্চুরি এসেছিল ধাওয়ানের ব্যাটে। রান তাড়া করতে নেমে ১০১ রানে অপরাজিত থেকে দিল্লিকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন ধাওয়ান। ৫৮ বলের ইনিংসে সেদিন ১৪টি বাউন্ডারি এবং একটি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন ধাওয়ান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা