kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

রোনালদোর অভাব বুঝতেই দিলেন না মোরাতা

অনলাইন ডেস্ক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০৯:১৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রোনালদোর অভাব বুঝতেই দিলেন না মোরাতা

ছবি: গোল করার পর উচ্ছাসিত আলভারো মোরাতা।

করোনায় আক্রান্ত দলের প্রাণভোমরা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। দলের সেরা খেলোয়াড়কে ছাড়া সিরি ‘আ’র সবশেষ ম্যাচে পয়েন্ট হারিয়েছে জুভেন্টাস। চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম ম্যাচে চাপটা তাই আরো বেশি চেপে ধরেছিল কোচ আন্দ্রে পিরলোকে। তবে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার শুরুর ম্যাচে জুভেন্টাসকে রোনালদোর অভাব বুঝতেই দিলেন না আলভারো মোরাতা। আতলেতিকো মাদ্রিদ থেকে ধারে খেলতে আসা এই স্ট্রাইকারের জোড়া গোলে জয় দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের যাত্রা শুরু করেছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। ডায়নামো কিয়েভের মাঠ থেকে জুভেন্টাস ফিরেছে ২-০ গোলের জয় নিয়ে।

মঙ্গলবার রাতে ২০২০-২১ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম ম্যাচটিই খেলেছে জুভেন্টাস, প্রতিপক্ষ ছিলো ডায়নামো কিয়েভ। তাদের মাঠে খেলতে গিয়ে প্রথমার্ধ ছিল গোলশূন্য ড্র। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে একটি ও শেষদিকে গিয়ে আরেকটি গোল করে দলকে ২-০ গোলের জয় এনে দিয়েছেন জুভেন্টাসের স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড আলভারো মোরাতা।

প্রতিপক্ষের মাঠে খেলতে গেলেও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ প্রায় নিজেদের হাতেই রেখেছিল জুভেন্টাস। তবে হুটহাট আক্রমণে বারবার জুভেন্টাসের রক্ষণকে কঠিন চ্যালেঞ্জ জানিয়েছে ডায়নামো কিয়েভ। কিন্তু নিজেদের আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করেও গোলের দেখা পায়নি স্বাগতিক দলটি।

ম্যাচের প্রথমার্ধে সে অর্থে ছিলো না তেমন কোনো আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ। নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচের শুরুটা তাই ছিলো ম্যাড়ম্যাড়ে। এর মধ্যেই দুইটি সুযোগ পেয়েছিল জুভেন্টাস। একবার তাদের আশাহত করেন কিয়েভ গোলরক্ষক, আরেকবার সুযোগ হাতছাড়া করেন ডিফেন্ডার জর্জ কিয়েল্লিনি।

তবে দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে এক মিনিটও সময় নষ্ট করেনি তুরিনোর বুড়িরা। ম্যাচের ৪৬ মিনিটের সময় দেজান কুলুসেভস্কি নেন জোরালো শট। সেটি ফিরিয়ে দেন কিয়েভ গোলরক্ষক হেরহি বুশচান। কিন্তু বল হাতে রাখতে পারেননি। আর এতেই ঘটে বিপদ। তার হাত থেকে ছুটে যাওয়া বল পেয়ে অনায়াসেই জালে প্রবেশ করান অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে লোনে খেলতে আসা মোরাতা।

পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে স্বাগতিকরা। ফলে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠে ম্যাচ। কিন্তু বারবারই আক্রমণভাগের ব্যর্থতায় হতাশায় ডোবে কিয়েভ। উল্টো ম্যাচের ৮৪ মিনিটের সময় ব্যবধান বাড়ান মোরাতা। এবার ডান দিক থেকে আসা কুয়াদ্রাদোর ক্রসে খুব কাছ থেকে হেড করে দলের জয় সুনিশ্চিত করেন এ স্প্যানিয়ার্ড।

অবশ্য ২-০ গোলের জয়েও 'জি' গ্রুপের শীর্ষস্থান পায়নি জুভেন্টাস। কেননা একই গ্রুপে দিনের অন্য ম্যাচে ফেরেন্সভারোসকে ৫-১ গোলে হারিয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। তারাই এখন শীর্ষে। দলের জয়ে একটি করে গোল ও এসিস্ট করেছেন অধিনায়ক লিওনেল মেসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা