kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

বুন্দেসলিগায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে

অনলাইন ডেস্ক   

২০ অক্টোবর, ২০২০ ১৮:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বুন্দেসলিগায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে

আন্তর্জাতিক বিরতির পর বুন্দেসলিগায় ফিরে আসা খেলোয়াড়দের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হবার প্রবণতা বেড়েছে বলে জার্মান লিগ সূত্র নিশ্চিত করেছে। সুইজারল্যান্ডের হয়ে খেলতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের ডিফেন্ডার ম্যানুয়েল আকানজি। তুরষ্কের ঘানার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ খেলতে গিয়ে করোনা পজিটিভ হয়েছে লিপজিগের মালির মিডফিল্ডার আমাডু হাইডারা। ফ্রান্সের অনুর্ধ্ব-২১ দল থেকে করোনা ভাইরাস নিয়ে ক্লাবে ফিরছেন হার্থা বার্লিনের মাত্তেও গুয়েনডুজি।

লিপজিগের স্পোর্টস পরিচালক মার্কাস ক্রুয়েশ বলেছেন, 'করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার দিকে তাকালে মনে হবে পরবর্তী বিরতিতে খেলোয়াড়দের ছাড়ার বিষয়টি আদৌ বিবেচনা করা উচিত কিনা। এক্ষেত্রে ফিফার একটি নির্দিষ্ট গাইডলাইন থাকা জরুরী হয়ে পড়েছে, বিশেষ করে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে ম্যাচ আয়োজন না করাটাই ভালো হবে।'

ইতোমধ্যেই সাড়া ইউরোপ জুড়ে শুরু হয়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ। জার্মানিও তার ব্যতিক্রম নয়। শনিবার দেশটির ডিজিজ কন্ট্রোল সেন্ট্রালের রেকর্ড অনুযায়ী ২৪ ঘন্টায় ৭৮৩০জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন যা তিনদিনের মধ্যে একটি রেকর্ড। হার্থা কোচ ব্রুনো লাবাডিয়া বলেছেন, 'পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হচ্ছে। এখন তো দেখা যাচ্ছে সবচেয়ে বাজে পরিস্থিতির মধ্যে আমরা পড়তে যাচ্ছি।'

বুধবার দ্বিতীয় বিভাগে ক্লাব নুরেনবার্গের দুজন পটিজিভ হবার খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। ওনাসবার্গ ও ডার্মস্টাডের মধ্যকার ম্যাচটি দুটি করোনা কেসের কারণে বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে লিগ কর্তৃপক্ষ। ডর্টমুন্ড কোচ লুসিয়েন ফাভরে আশঙ্কা করে বলেছেন যেভাবে খেলোয়াড়দের মধ্যে ভাইরাসটি আবারো ছড়িয়ে পড়ছে তাতে লিগ পুনরায় বাতিলের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। মার্চে মহামারী শুরু হবার পর টানা দুই মাস জার্মানিতে কোন ধরনের ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি।

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেল মার্কেল সাধারণ মানুষের প্রতি অপ্রয়োজনে বাইরে বের না হওয়া ও সম্ভাব্য সকল ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা