kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ব্যাঙ্গালুরুকে অবিশ্বাস্য জয় উপহার দিলেন এবি

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ অক্টোবর, ২০২০ ২১:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যাঙ্গালুরুকে অবিশ্বাস্য জয় উপহার দিলেন এবি

আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে এক অবিশ্বাস্য জয়ের স্বাদ দিলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। জয়ের জন্য ১৭৮ রানের টার্গেটে ১৩.১ ওভারে ১০২ রানে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে হারায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। আর তখনই মাত্র উইকেটে যান ডি ভিলিয়ার্স। রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে জিততে এ সময় ব্যাঙ্গালুরুর প্রয়োজন ছিল ৪১ বলে ৭৬ রান। ঠিক তখনই ২২ বলে অপরাজিত ৫৫ রানের ইনিংস খেলে ব্যাঙ্গালুরুকে অবিশ্বাস্য এক জয় উপহার দেন এবি।

আজ দুবাইয়ে দিনের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নামে রাজস্থান। অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথের ৩৬ বলে ৬টি চার ও ১টি ছক্কায় ৫৭ এবং ওপেনার রবিন উথাপ্পার ২২ বলে ৭টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪১ রানের সুবাদে লড়াই করার মত সংগ্রহ পেয়েছিল রাজস্থান। ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৭৭ রান করে তারা। ব্যাঙ্গালুরুর দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার ক্রিস মরিস ২৬ রানে ৪ উইকেট নেন। 

এরপর ব্যাঙ্গালুরু জবাব দিতে নেমে শুরুতেই ১৪ রান করা ওপেনার অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ফিঞ্চকে হারায়। দ্বিতীয় উইকেটে দেবদূত পাডিক্কালকে নিয়ে ৭৯ রানের জুটি গড়েন কোহলি। দলীয় ১০২ রানেই ফিরে যান পাডিক্কাল ও কোহলি। পাডিক্কাল ৩৫ ও কোহলি ৪৩ রান করেন। তাদের বিদায়ের পর ব্যাঙ্গালুরুর আশা-ভরসা ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স। ক্রিজে গিয়ে শুরুতে তিনি সাবলীল ছিলেন না। তাই ব্যাঙ্গালুরুর আস্কিং রেট বেড়ে যায়। ২ ওভারে ৩৫ রান দরকার পড়ে।

১৯তম ওভারে রাজস্থানের পেসার জয়দেব উনাদকাটকে প্রথম তিন বলে তিনটি ছক্কা মারেন ডি ভিলিয়ার্স। শেষ ওভারে ১০ রানের সমীকরনে প্রথম তিন বলে পাঁচ রান পায় ব্যাঙ্গালুরু। চতুর্থ বলে ইংল্যান্ডের জোফরা আর্চারকে ছক্কা মেরে ব্যাঙ্গালুরুর জয় নিশ্চিত করেন এবি। তার ইনিংসে ১টি চার ও ৬টি ছক্কা ছিল। ২ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে ব্যাঙ্গালুরু। ৯ ম্যাচে ৬ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে বিরাট কোহলির দলের অবস্থান টেবিলের তৃতীয় স্থানে। শীর্ষে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা