kalerkantho

শনিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৭। ২৪ অক্টোবর ২০২০। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

টেস্ট খেলার স্বপ্নে বিভোর সাইফউদ্দিন

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৫:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টেস্ট খেলার স্বপ্নে বিভোর সাইফউদ্দিন

২০১৬ সালে নিজ মাঠে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ব্যটে-বল হাতে পারফরমেন্স দিয়ে সকলের নজর কেড়েছিলেন অল-রাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কার মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজএ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পা রাখেন। একই বছর দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে অভিষেকও ঘটে তার। এরপর সাইফকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। এখন পর্যন্ত ২২টি ওয়ানডে, ১৫টি টি-টোয়েন্টি খেললেও টেস্ট খেলা হয়ে ওঠেনি।

আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য প্রাথমিকভাবে ২৭ জনের দলে আছেন সাইফউদ্দিন। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের সদস্য হয়ে শ্রীলঙ্কা যাওয়া হবে কিনা, সেটা কেউ জানে না। তারপরেও টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখছেন সাইফ, 'প্রতিটি ক্রিকেটারেরই স্বপ্ন থাকে টেস্ট ক্রিকেট খেলা। আমিও ব্যতিক্রম নই। চেষ্টা থাকবে সুযোগ পেলে ভালো কিছু করার। আমার এখন সবচেয়ে বড় লক্ষ্য নিজেকে ফিট করে তোলা। স্কিল উন্নতি করা। এজন্য কঠোর পরিশ্রম করছি।'

টেস্ট স্কোয়াডে ও দীর্ঘদিন পর মিরপুরে ফিরতে পেরে খুশি সাইফউদ্দিন, ‘আলহামদুলিল্লাহ ৬-৭ মাস পর দলের সাথে মিরপুরের মাঠে ফিরতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত। প্রথমবারের মত সেন্টার উইকেটে বল করতে পেরে, আরও ভালো লাগছে। আমি যেহেতু প্রথমবারের মত টেস্ট দলে ডাক পেয়েছি, তাতেও খুবই আনন্দিত আমি। চেষ্টা করব নিজের সেরাটা দেওয়ার এবং যতটুকু পারি শেখার।'

নিজের পারফরম্যান্সকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মানে উন্নতি ঘটাতে ঘাম ঝড়াচ্ছেন বলে জানান সাইফউদ্দিন। তিনি বলেন, ‘করোনার কারণে প্রায় ৬-৭ মাস আমি বোলিং, ব্যাটিং করতে পারিনি। তবে নিজেকে তৈরি করতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। শ্রীলঙ্কায় গেলে যে সময়টা পাব, সে সময়ের মধ্যে নিজেকে তৈরি করতে পারব বলে আশাবাদী।'

করোনার সময় নিজ জেলা ফেনীতেই ছিলেন সাইফউদ্দিন। কিন্তু সেখানে অনুশীলন করতে পারেননি তিনি। সাইফউদ্দিন বলেন, ‘করোনার সময়টা আমার জন্য কঠিন ছিল। যেহেতু আমি নিজ জেলা ফেনীতে ছিলাম। ফিটনেসের কাজ করতে পেরেছি, কিন্তু স্কিল নিয়ে পারিনি। তাই অন্য খেলোয়াড়দের চেয়ে অনেক পিছিয়ে আছি। পাকা উইকেটে ব্যাটিং করেছি। বোলিং করতে পারিনি। আজকে ব্যাটিং-বোলিং করেছি। ছন্দ পেতে আরও সময় লাগবে। কিছুটা অস্বস্তি লাগছে। তারপরও আমি আশাবাদী, আরও কিছুদিন বোলিং করতে পারলে হয়তো বা আগের রূপে ফিরে আসতে পারব।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা