kalerkantho

সোমবার । ১০ কার্তিক ১৪২৭। ২৬ অক্টোবর ২০২০। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নাদালের বিদায়, সেমিতে জকোভিচ

অনলাইন ডেস্ক   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:১৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নাদালের বিদায়, সেমিতে জকোভিচ

ছবি : এএফপি

ইতালিয়ান ওপেন টেনিস টুর্নামেন্টে পুরুষ বিভাগের কোয়র্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে গেছে ক্লে কোর্টের রাজা রাফায়েল নাদাল। আর্জেন্টাইন দিয়েগো শোয়ার্জম্যানের কাছে শনিবার সরাসরি সেটে পরাজিত হয়ে বিদায় নিয়েছেন নয় বারের এই চ্যাম্পিয়ন। অষ্টম বাছাই শোয়ার্জম্যান শেষ আটে নাদালকে ৬-২, ৭-৫ গেমে পরাজিত করে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছেন। ফ্রেঞ্চ ওপেনের আগে এটাই ছিল নাদালের শেষ প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট। 

রেকর্ড ১৩তম ফ্রেঞ্চ ওপেন ও সব মিলিয়ে ২০তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের লক্ষ্যে রোলা গাঁরোতে কোর্টে নামবেন নাদাল। শীর্ষ বাছাই নোভাক জকোভিচ অবশ্য কষ্টার্জিত জয় দিয়ে সেমিফাইনালে উঠেছেন। জার্মান কোয়ালিফায়ার ডোমিনিক কোপফারকে ৬-৩, ৪-৬, ৬-৩ গেমে পরাজিত করে শেষ চার নিশ্চিত করেছেন জকোভিচ।

ম্যাচ শেষে ৩৪ বছর বয়সী নাদাল বলেছেন, 'আজকের রাতটা আমার ছিল না। সে খুবই ভালো ম্যাচ খেলেছে। কিন্তু আমি সেটা করতে পারিনি, আর এমন হলে পরাজয় নিশ্চিত। এই ধরনের পরাজয়ের পেছনে কোনো পেছনে নেই। দীর্ঘ সময় আমি প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ম্যাচের বাইরে ছিলাম। তারপরেও দুটি ভালো ম্যাচ খেলেছি।'

এর আগে শুয়ার্টজম্যানের বিপক্ষে নয়বারের মোকাবেলায় প্রতিবারই জয়ী হয়েছেন নাদাল। কিন্তু এবার লাল মাটিতে আর পেরে উঠলেন না। করোনাভাইরাসের শঙ্কা কাটিয়ে দীর্ঘ ছয়মাস পর কোর্টে নেমেছিলেন নাদাল। করোনার শঙ্কায় তিনি এবারের ইউএস ওপেনে অংশ নেননি। শেষ চারে শুয়ার্টজম্যানের প্রতিপক্ষ কানাডিয়ান ১২তম বাছাই ডেনিস শাপোভালোভ।

এদিকে বিশ্বের ৯৭তম র‌্যাঙ্কধারী জার্মান প্রতিপক্ষের বিপক্ষে দুই ঘন্টারও বেশি সময় লড়াই করা নিয়ে ম্যাচ শেষে কিছুটা হতাশাই প্রকাশ করেছেন জকোভিচ। গত মাসে ইউএস ওপেন হতাশা থেকে অসাবধানতা বশত: বল ছুড়ে মারায় তা একজন নারী লাইনজাজের গলায় গিয়ে আঘাত করে। যে পেছনে জকোভিচকে টুর্নামেন্ট থেকে বহিস্কার করা হয়েছিল। কালও প্রায় একই ধরনের হতাশা থেকে একটি সার্ভিস গেম পরাজিত হওয়ায় তিনি র‌্যাকেট ছুড়ে মারেন ও রাগের বশে চিৎকার করতে থাকেন।

এ সম্পর্কে সার্বিয়ান তারকা বলেছেন ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, 'ক্যারিয়ারে এই প্রথম বা শেষবার আমি র‌্যাকেট ভাঙ্গিনি। আগেও আমি এমন করেছি। আগামীতে আবারো হতে পারে। আমি কখনই এসব করতে চাইনা। কিন্তু পরিস্থিতি যখন সামনে চলে আসে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারিনা।'

এনিয়ে ১১বারের মত রোমে সেমিফাইনালে খেলতে যাচ্ছেন জকোভিচ। নয়বার ফাইনালে উঠে শিরোপা জিতেছেন চারটি। ৩৩ বছর বয়সী এই সার্বিয়ান সেমিফাইনালে নরওযের কাসপার রুডের বিপক্ষে কোর্টে নামবেন। ইতালিয়ান চতুর্থ বাছাই মাত্তেও বেরেত্তিনিকে ৪-৬, ৬-৩, ৭-৬ (৭/৫) গেমে পরাজিত করে কাসপার সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা