kalerkantho

শুক্রবার । ১০ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৭ সফর ১৪৪২

নতুন গুঞ্জনে তোলপাড়; দুই সুপারস্টার খেলবেন বার্সেলোনায়?

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ আগস্ট, ২০২০ ১৭:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন গুঞ্জনে তোলপাড়; দুই সুপারস্টার খেলবেন বার্সেলোনায়?

গত এক যুগ ধরে তারা দুজন ফুটবলবিশ্ব নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন। তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী, চিরশত্রুও বটে। সেই লিওনেল মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে যদি একই দলে দেখা যায়! সেই দলটা যদি হয় বার্সেলোনা! নিঃসন্দেহে এটা আকাশকুসুম কল্পনা। কিন্তু বিখ্যাত স্প্যানিশ সাংবাদিক গিয়েম বালাগ এই তথ্য ফাঁস করে বিশ্ববাসীকে চমকে দিয়েছেন। গতকাল থেকে সোশ্যাল সাইটে তুমুল আলোড়ন তুলেছে প্রায় অসম্ভব এই দলবদলের খবর।

চ্যম্পিয়ন্স লিগ থেকে জুভেন্তাস ছিটকে যাওয়ার পর গুঞ্জন উঠেছিল যে, রোনালদো নাকি ক্লাব ছাড়বেন। এখানে তাকে সঙ্গে দেওয়ার যোগ্য কেউ নেই। সিআরসেভেনের সম্ভাব্য গন্তব্য হিসেবে শোনা গিয়েছিল পিএসজির নাম। যেখানে খেলে থাকেন ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমার। কিন্তু গিয়েম বালাগ যেন সবকিছু উল্টে দিলেন। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে নতুন চ্যালেঞ্জের খোঁজে জুভেন্টাসে যাওয়া রোনালদোকে নাকি এবার বার্সেলোনাতেও দেখা যেতে পারে! ৩৫ বছর বয়সেও এ মৌসুমে ৩৫ গোল পেয়েছেন রোনালদো। সুতরাং তাকে নিতে বার্সার আপত্তি থাকার কথা নয়।

বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বালাগ বলেন, 'রোনালদোর সঙ্গে পিএসজিকে মিলিয়ে গুঞ্জন সৃষ্টি হওয়ার কারণ কিন্তু এটা নয় যে পিএসজি তাকে পেতে চায়। বরং জর্জ মেন্ডেসকে (রোনালদোর এজেন্ট) বলা হয়েছে রোনালদোর জন্য একটা দল খুঁজে বের করার জন্য। গত ছয় মাসে ওর সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের নাম জড়িয়েছিল। কিন্তু রিয়াল বলেছে, সুযোগ নেই। এদিকে জুভেন্টাস তাকে দেওয়া বিপুল পরিমাণ বেতনের হাত থেকে মুক্তি চায়। তাই তারা রোনালদোকে নেওয়ার জন্য সব ক্লাবের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। এমনকী বার্সেলোনার সঙ্গেও!'

তবে সমর্থকদের এখনই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত না নেওয়ার কথাও বলেছেন বালাগ। কারণ ৩৫ পেরোনো রোনালদোর জন্য এত বেশি বেতন দিয়ে নেওয়ার মতো ক্লাব বেশি নেই। তবে বেশি বয়সী খেলোয়াড় কেনায় ইদানীং আপত্তি দেখাচ্ছে না বার্সেলোনা। বালাগের ভাষায়, 'আমার মনে হয় না এত সহজে জুভেন্তাস তাকে ছাড়তে পারবে। কারণ ক্রিশ্চিয়ানো যে পরিমাণ বেতন পান, কোন দল এত বেতন দেবে? রিয়ালে কর দেওয়ার পরই ২৩ মিলিয়ন পেতেন, জুভেন্টাসেও তার সমান পেয়ে থাকেন।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা