kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

চেলসিকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন

অনলাইন ডেস্ক   

৯ আগস্ট, ২০২০ ০৩:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চেলসিকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন

চেলসিকে দাঁড়াতেই দিল না বায়ার্ন মিউনিখ। রবের্ত লেভানদোভস্কির দারুণ নৈপুণ্যে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে জার্মান ক্লাবটি।

আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় শনিবার রাতে শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ৪-১ গোলে জেতে বায়ার্ন। দুটি গোল করার পাশাপাশি অন্য দুটিতে অবদান রাখেন লেভানদোভস্কি।

দুই লেগ মিলে ৭-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বায়ার্ন। চেলসির মাঠে ৩-০ গোলে জিতেছিল তারা।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লেভানদোভস্কির নৈপুণ্যে ম্যাচের দশম মিনিটেই গোল পেয়ে যায় বায়ার্ন। ডি-বক্সে তাঁকে গোলরক্ষক উইলি কাবাইয়েরো ফেলে দিলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। অবশ্য অফসাইডের পতাকা তুলেছিলেন লাইন্সম্যান; তবে ভিএআরে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত বহাল থাকে। নিখুঁত স্পট কিকে গোলটি করেন পোলিশ এই স্ট্রাইকার। 

ইভান পেরিসিচ ২৪ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। লেভানদোভস্কির পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে কোনাকুনি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এই ক্রোয়েট মিডফিল্ডার।

পাঁচ মিনিট পর দূরপাল্লার শটে জালে বল পাঠিয়েছিলেন চেলসির ক্যালাম হাডসন-ওডোই। তবে আক্রমণের শুরুতে ট্যামি আব্রাহাম অফসাইডে থাকায় ভিএআরের সাহায্যে গোল দেননি রেফারি।

বায়ার্ন গোলরক্ষকের ভুলে ৪৪তম মিনিটে গোলের দেখা পায় চেলসি। বাঁ দিক থেকে এমেরসনের বাড়ানো ক্রসে কোনো রকম হুমকি ছিল না। কিন্তু ঝাঁপিয়ে ধরতে গিয়ে মানুয়েল নয়ার উল্টো বল তুলে দেন আব্রাহামের পায়ে। কাছ থেকে বল জালে ঠেলতে কোনো ভুল হয়নি তরুণ ইংলিশ ফরোয়ার্ডের।

৭৬তম মিনিটে স্কোরলাইন ৩-১ করে তোলিসো। লেভানদোভস্কির ক্রস ছোট ডি-বক্সে পেয়ে অনায়াসে ঠিকানায় পাঠান ফরাসি এই মিডফিল্ডার।

৮৩তম মিনিটে চেলসির কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন লেভানদোভস্কি। ওদ্রিওসোলার ক্রসে দারুণ এক হেডে আসরে নিজের ত্রয়োদশ গোলটি করেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা