kalerkantho

রবিবার। ৫ আশ্বিন ১৪২৭ । ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০। ২ সফর ১৪৪২

আবারও শুরু হচ্ছে টাইগারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন

অনলাইন ডেস্ক   

৭ আগস্ট, ২০২০ ১৯:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবারও শুরু হচ্ছে টাইগারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন

দ্বিতীয়বারের মতো আগামীকাল শনিবার থেকে পাঁচ ভেন্যুতে পুনরায় শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত অনুশীলন। করোনাভাইরাসের কারণ কড়া প্রটোকলের মধ্যে এই অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।বিসিবির তৈরি করা সময়সূচি অনুযায়ী, বিভিন্ন ভেন্যুতে ২৭জন ক্রিকেটার ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করবেন।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৫ জন ক্রিকেট অনুশীলন করবেন। এদের মধ্যে নতুনভাবে অর্ন্তভুক্ত হয়েছেন- টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক, টি-টোয়েন্টি দলনেতা মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম, বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম, লেগ-স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ও পেসার আল-আমিন হোসেন। চলতি সপ্তাহে ঢাকায় এসে অনুশীলনে যোগ দিবেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান।

চিকিৎসার জন্য ইংল্যান্ডে যাওয়ায় কোয়ারেন্টাইনে থাকা ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল আগামী ১৪ আগস্ট অনুশীলনে যোগ দিবেন। ঈদের বিরতির আগে মিরপুরে অনুশীলন করেছিলেন, মুশফিক , ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ মিঠুন, এনামুল জক বিজয়, শফিউল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, মেহেদি হাসান রানা। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে পুনরায় অনুশীলন শুরু করছেন মেহেদি হাসান মিরাজ, মেহেদি হাসান ও নুরুল হাসান সোহান।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম বক্তিগত অনুশীলনে নাসুম আহমেদ ও সৈয়দ খালেদের সাথে যোগ দিবেন পেসার আবু জায়েদ রাহি ও এবাদত হোসেন। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে নাইম হাসানের সঙ্গী হচ্ছেন, ইয়াসির আলি রাব্বি ও ইরফান শুক্কুর। রাজশাহীর কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে নাজমুল হোসেন শান্তর সাথে যোগ দিবেন বাঁ-হাতি স্পিনার সানজামুল ইসলাম।

আপতত, ছয়দিনের অনুশীলনের সময়সূচি প্রকাশ করেছে বিসিবি। এরপরে আরও ক্রিকেটার অনুশীলনে যোগ দিলে এটি নতুন করে তৈরি করা হবে। প্রথম পর্যায়ে ব্যক্তিগত অনুশীলন হয়েছিল ১৯ থেকে ২৭ জুলাই পর্যন্ত। করোনাভাইরাসের কারণ ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্যবিধির কথা চিন্তা করে অনুশীলনের প্রতি আগ্রহ দেখায়নি বিসিবি। কিন্তু খেলোয়াড়রা নিজ থেকেই অনুশীলনের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে।

৩৫জন খেলোয়াড়ের সাথে ভার্চুয়াল বৈঠকের পর, বোর্ড ক্রিকেটারের অনুশীলন শুরুর সিদ্বান্ত নেয়, যার বেশিরভাগ জুড়ে ছিল ফিটনেস। ওই সময় বোলাররা বোলিংয়ের সুযোগ পাননি। তারা শুধুমাত্র জগিং ও জিম করার সুযোগ পান। তবে ব্যাটসম্যানরা ইনডোরে বোলিং মেশিনে ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়েছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা