kalerkantho

শনিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৮ সফর ১৪৪২

ক্রিকেটাররা বয়স জালিয়াতি স্বীকার করলে ক্ষমা, না হলে শাস্তি

অনলাইন ডেস্ক   

৪ আগস্ট, ২০২০ ১৯:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রিকেটাররা বয়স জালিয়াতি স্বীকার করলে ক্ষমা, না হলে শাস্তি

ভারত-বাংলাদেশসহ উপমহাদেশের দেশগুলোতে বয়স জালিয়াতি খুব সাধারণ একটা ঘটনা। প্রায় প্রতিটি ক্রিকেটারের প্রকৃত বয়স নথিভুক্ত বয়সের চেয়ে ২-৫ বছর বেশি। এবার ঘরোয়া ক্রিকেটে বয়স বাড়ানো আটকাতে নতুন রাস্তা নিচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। নথিভুক্ত ক্রিকেটারেরা বয়স বাড়িয়ে থাকলে যদি এখন তা স্বীকার করে নেন, তাহলে তাঁদের শাস্তি দেওয়া হবে না। পরে ধরা পড়লে দুই বছরের নির্বাসনে পাঠানো হবে।

এক বিবৃতিতে বিসিসিআই জানিয়েছে, এ ব্যবস্থা ২০২০-২১ মৌসুমে বোর্ডের বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতায় যে ক্রিকেটাররা যোগ দেবেন, তাঁদের সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। ক্রিকেটাররা যদি স্বীকার করে নেন, অতীতে বয়সের প্রমাণপত্র হিসেবে জাল তথ্য বা নথি দেওয়া হয়েছে, তাঁদের শাস্তি দেওয়া হবে না। আসল বয়সের প্রমাণপত্র দেখালে সেই বয়স অনুযায়ী প্রতিযোগিতায় খেলতে দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে। এ জন্য আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারকে স্বাক্ষর করা চিঠি এবং আসল বয়সের প্রমাণ জমা দিতে হবে। 

বিসিসিআই আরও জানিয়েছে, যদি কেউ বয়স গোপন করার কথা এখন স্বীকার না করে পরে ধড়া পড়েন, তাহলে তার দুই বছরের নির্বাসন হবে। সেই শাস্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরেও বোর্ডের বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতায় নামার অনুমতি দেওয়া হবে না। এমনকী রাজ্য সংস্থার বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতাতেও খেলতে পারবেন না তারা। এছাড়া সকল পর্যায়ের ক্রিকেটাররা বাসস্থান নিয়ে ভুল তথ্য দিয়েছেন প্রমাণিত হলে তাদেরকেও ২ বছর নিষিদ্ধ করা হবে। তবে এ ক্ষেত্রে দোষ স্বীকার করলেও পার পাওয়া যাবে না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা