kalerkantho

শনিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৮ সফর ১৪৪২

ইচ্ছা করে কাশলেই শাস্তি

অনলাইন ডেস্ক   

৪ আগস্ট, ২০২০ ১৭:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইচ্ছা করে কাশলেই শাস্তি

করোনা মাহামারি চলাকালে কোনো ফুটবলার যদি বিরোধী পক্ষের খেলোয়াড় বা কর্মকর্তাদের উদ্দেশ করে ইচ্ছাকৃতভাবে কাশি দেন, তাহলে রেফারি তাঁর শাস্তি হিসেবে লাল কার্ড দেখাতে পারবেন। ক্রীড়া আইন প্রণেতা ও ইংল্যান্ডের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন এই ঘোষণা দিয়েছে। 

আন্তর্জাতিক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি) বলেছে, বিষয়টি রেফারির সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে। তিনি যদি মনে করেন, বিষয়টি কাউকে উত্ত্যক্ত করার জন্য করা হয়েছে, তাহলে এই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। আইএফবিএ বিষয়টি আরো খোলাসা করে বলেছে, উদ্দেশ্যমূলকভাবে কাশি দেওয়াকে আপত্তিকর, অপমানজনক বা অবমাননাকর ভাষা কিংবা অঙ্গভঙ্গি করার শামিল।

অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড জানায়, 'সব ধরনের অপরাধের মতো রেফারিকে অন্যান্য অপরাধের ধরন বুঝে রায় দিতে হবে। বিষয়টি যদি স্পষ্টত দুর্ঘটনাবশত হয়ে থাকে, কিংবা বেশ কিছুটা দূরত্বে কাশি দেওয়া হয়, তাহলে রেফারি ওই কাশির জন্য কোনো শাস্তি দেবেন না। তবে যদি সেটি কাছ থেকে ঘটে এবং আক্রমণাত্মক হিসেবে পরিলক্ষিত হয়, তাহলে ব্যাবস্থা নিতে পারবেন রেফারি।'

ইংল্যান্ডের তৃণমূল ফটবলেও এফএর তত্ত্বাবধানে এই আইন অবিলম্বে কার্যকর করা হবে। তবে বিষয়টি যদি লাল কার্ড প্রদর্শনের মতো গুরুতর মনে না হয়, তাহলে অখেলোয়াড়সুলভ আচরণের দায়ে রেফারি সতর্ক করে দিতে পারেন এবং সেটি ডকুমেন্ট হিসেবে লিপিবদ্ধ করতে পারবেন। কেউ যদি স্বাভাবিক কাশি দেয়, কিংবা সেটি উদ্দেশ্যমূলকভাবে না হয়, তাহলে রেফারি শাস্তি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে পারবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা