kalerkantho

রবিবার। ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭। ৯ আগস্ট ২০২০ । ১৮ জিলহজ ১৪৪১

যে ৭টি লজ্জার রেকর্ড লেখা ধোনির নামের পাশে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ জুলাই, ২০২০ ২১:০১ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



যে ৭টি লজ্জার রেকর্ড লেখা ধোনির নামের পাশে

পরিসংখ্যানে ভারতের শ্রেষ্ঠ অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। দুটি বিশ্বকাপসহ একটি আইসিসি চ্যম্পিয়ন্স ট্রফি উপহার দিয়েছেন দেশকে। উইকেটকিপার হিসেবে অসাধারণ। ব্যাট হাতে নামের পাশে আছে অনেক রেকর্ড। আর ঠাণ্ডা মাথার নেতৃত্বের জন্য তো 'ক্যাপ্টেন কুল' উপাধিও পেয়ে গেছেন। পেয়েছেন 'রিভিউ মাস্টার' উপাধি। কিন্তু এই ধোনিই বহুবার দলকে বাঁচাতে ব্যর্থ হয়েছেন। কখনও দলে এমন কাউকে সুযোগ দিয়েছেন, যে কোনো কাজেই আসেনি। সব মিলিয়ে ধোনির নামের পাশেও আছে কিছু লজ্জাজনক রেকর্ড। চোখ বুলিয়ে নিন সেসব রেকর্ডে।

​টেস্টে বিদেশের মাটিতে সবচেয়ে বেশি হার :
মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে টেস্টে বিদেশের মাটিতে সবচেয়ে বেশিবার হেরেছে ভারত। ধোনির নেতৃত্বে ভারত টেস্ট ম্যাচ জিতেছে ২৭টি, হেরেছে ১৮টি ম্যাচে। এর মধ্যে ১৫টি টেস্ট ম্যাচই ভারত হেরেছে বিদেশের মাটিতে। কপিল দেব, সুনীল গাভাস্কার, মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন, সৌরভ গাঙ্গুলী, রাহুল দ্রাবিড় এমনকী আজকের বিরাট কোহলির নেতৃত্বেও এই লজ্জাজনক অবস্থা দেখা যায়নি ভারতীয় দলের।

​পরপর ৪টি টেস্ট সিরিজে হার :
ধোনির নেতৃত্বে ওয়ানডে ম্যাচে জনপ্রিয়তার শিখরে উঠেছিল ভারতীয় দল। অনেকদিন এই অবস্থান তারা ঠিক রেখেছিল। টেস্টেও একবার সেরা হয়ে দেখিয়েছিল ধোনি বাহিনী। কিন্তু সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখা সম্ভব হয়নি। ভারতের অনেক অধিনায়কই টানা টেস্ট ম্যাচ হেরেছেন। বিরাট কোহলি যাদের অন্যতম। কিন্তু লাগাতার টেস্ট সিরিজ হারার রেকর্ড একমাত্র ধোনির। তার নেতৃত্বে ভারতীয় দল পরপর চারটি টেস্ট সিরিজ হেরেছে।

​বিদেশের মাটিতে সেঞ্চুরি নেই :
পুরো ক্রিকেট ক্যারিয়ারে এখনও পর্যন্ত মোট ১৬টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তার মধ্যে ওয়ানডেতে ১০টি আর টেস্টে  ৬টি। তবে আজ পর্যন্ত বিদেশের মাটিতে একটিও সেঞ্চুরি করতে পারেননি ধোনি। যে কয়েকটি সেঞ্চুরি তিনি করেছেন, তার সবগুলোই এশিয়া মহাদেশে। এশিয়ার বাইরে কোনো মহাদেশে সেঞ্চুরি নেই তার।

​১০৮ বলে হাফ সেঞ্চুরি :
ওয়ানডে ম্যাচে খুব ধীর গতিতে খেলে যে কয়েকজন ভারতীয় ক্রিকেটার হাফ সেঞ্চুরি করেছেন, ধোনি তাদের শীর্ষে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একটি ম্যাচে ধোনি ১০৮ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন। জেনে রাখা ভালো, সেই ম্যাচে দুর্ধর্ষ ক্যারিবিয়ান বোলিংয়ের সামনে মুখ তুলে দাঁড়াতেই পারেনি ভারতীয় দল। পরিস্থিতির সামাল দিতে গিয়েই এমনতর করুণ পরিস্থিতি হয়েছিল ধোনির। তবে এর আগে এই রেকর্ড ছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০৩ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি।

​১০০ বল খেলেও কোনো বাউন্ডারি নেই :
তাকে বলা হয় দুনিয়ার সেরা ফিনিশার। ছক্কা হাঁকানোর দিক থেকেও দ্বিতীয় কাউকে খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। ছক্কা মারতে তিনি এতটাই পারদর্শি যে, ম্যাচ জেতাতেও তিনি উড়িয়ে মারেন। ঠিক যেমনটা ২০১১ সালের বিশ্বকাপে করে দেখিয়েছিলেন ধোনি। কিন্তু সেই ধোনিই আবার কখনো এতটাই ঢিমেতালে খেলেছেন যে, মানুষ বিরক্ত হয়ে গেছে। ২০১৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একটি ম্যাচে ১০০ বল পর্যন্ত কোনো বাউন্ডারি মারতে পারেননি তিনি।

​ওয়ানডে অভিষেকে 'ডাক' :
২০০৪ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল ধোনির। কিন্তু প্রথম ম্যাচেই তিনি হতাশ করেছিলেন। সেই ম্যাচে আউট হয়েছিলেন ০ রানে। এই নিয়ে তার অনেক আক্ষেপ ছিল। বহুবার বেশ কিছু সাক্ষাৎকারে ধোনি ওই ইনিংস নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। 

​টি-টোয়েন্টি অভিষেকেও 'ডাক' :
টি-টোয়েন্টিতে যে ম্যাচটি দিয়ে অভিষেক হয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির, সেই ম্যাচেই তিনি ০ রান করে আউট হয়ে গিয়েছিলেন। ২০০৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি খেলেছিল ভারত। কিন্তু জীবনের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচেই দর্শকদের নিরাশ করেছিলেন মারকুটে ধোনি। প্যাভিলিয়নে ফিরেছিলেন শূন্য হাতে। তবে বিশ্বকাপ জয় আর দুর্দান্ত অধিনায়কত্ব তার এসব অপূর্ণতা ভুলিয়ে দিয়েছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা