kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২২ শ্রাবণ ১৪২৭। ৬ আগস্ট  ২০২০। ১৫ জিলহজ ১৪৪১

বিপাকে পড়লেও আপাতত ভয় নেই সিমন্সের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ জুলাই, ২০২০ ১৮:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিপাকে পড়লেও আপাতত ভয় নেই সিমন্সের

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের আগে বির্তকে জড়ালেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্র্ধান কোচ ফিল সিমন্স। তাকে বরখাস্ত করার দাবি তুলেছেন বার্বাডোজ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান কনডে রিলে। কারণ ম্যানচেস্টারে টিম হোটেলে 'জীবাণুমুক্ত' পরিবেশ থেকে বেরিয়ে গত শুক্রবার একটি শেষকৃত্যে যোগ দেন সিমন্স। অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের অনুমতি নিয়েছিলেন সিমন্স। করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে সিমন্সের এমনটি করা উচিত হয়নি বলে জানান রিলে।

বুধবার ইএসপিএনক্রিকইনফোর প্রতিবেদনে বলা হয়, সিমন্সকে বরখাস্ত করার ব্যাপারে কনডে রিলে ওয়েস্ট উইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডকে ই-মেইল করেছেন। তিনি বলেন, 'রেডিওতে শুনলাম, সম্প্রতি প্রধান কোচ সিমন্স একটি শেষকৃত্যে অংশগ্রহণ করেছেন এবং বর্তমানে স্বেচ্ছা-আইসোলেশনে আছেন। খবরটা যদি সত্যি হয়, তবে প্রধান কোচের পদ থেকে তাকে অপসারণ করার আহ্বান জানাচ্ছি। বোকার মত কাজ করেছেন সিমন্স। শেষকৃত্যে গিয়ে ইংল্যান্ড সফরে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২৫ ক্রিকেটার ও ম্যানেজমেন্টের সবার জীবনকে ঝুঁকিতে ফেলেছেন সিমন্স।'

তবে বোর্ড প্রেসিডেন্ট রিকি স্কেরিট এক ভিডিও কনফারেন্সে বলেন, 'আমি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট সমর্থকদের নিশ্চিত করতে চাই, ফিল সিমন্সের প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের পূর্ণ সমর্থন আছে। কে কি বলল তাতে কিছু আসে যায় না।'

দ্বিতীয়বার ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করা সিমন্স এক বিবৃতিতে বলেন, 'আমার পরিবারের জন্য সময়টা মোটেই সহজ যাচ্ছে না। আমার স্ত্রী তার বাবার সঙ্গে খুবই ঘনিষ্ট ছিলেন এবং তাঁর মৃত্যু আমাদের ব্যথিত করেছে। ওই শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে আমার না গিয়ে কোনো উপায় ছিল না।'

শেষকৃত্য অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পর দুই দফায় কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয় সিমন্সের। দুবারই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তারপরও স্বেচ্ছা-আইসোলেশন শেষে আগামীকাল থেকে দলের অনুশীলনে যোগ দিতে পারবেন সিমন্স। গত কয়েকদিন সিমন্সকে ছাড়া অনুশীলন করেছে হোল্ডার-রোচরা। সিমন্সের পরিবর্তে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের দেখভাল করেছেন সহকারী কোচ রডি ইস্টউইক, রেয়ন গ্রিফিথ এবং ব্যাটিং কোচ ফ্লয়েড রেইফার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা