kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

স্ত্রীর দোষে চুক্তি হারালেন ফুটবলার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ জুন, ২০২০ ১৯:৫০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্ত্রীর দোষে চুক্তি হারালেন ফুটবলার

ক্লাব ফুটবলে খুব গুরুতর অপরাধ না করলে ফুটবলারদের চুক্তি মাঝপথে বাতিল হওয়ার নজির নেই।  না খেলেও মৌসুমের পর মৌসুম বেতন নিতে পারেন ফুটবলাররা। আর বউয়ের দোষে স্বামীর চুক্তি বাতিল করা তো বিরল ঘটনা। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে মার্কিন ক্লাব এলএ গ্যালাক্সির সার্বিয়ান তারকা ফুটবলার আলেক্সান্দার কাতাইয়ের ক্ষেত্রে। সোশ্যাল সাইটে কাতাইয়ের স্ত্রী বর্ণবাদী মন্তব্য করায় বরখাস্ত করা হয়েছে কাতাইকে। অবশ্য এটা না করে ক্লাবটির উপায় ছিল না।

সাবেক বাস্কেটবল তারকা জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র এখন উত্তাল। ২৫ মে এক শেতাঙ্গ পুলিশের নিষ্ঠুরতায় মৃত্যু হয় কৃষ্ণাঙ্গ ফ্লয়েডের। সেই হত্যার ভিডিও দেখলে কোনো স্বাভাবিক মানুষ অসুস্থ হয়ে যাবেন। এরপর থেকে করোনাভাইরাসকে উপক্ষা করে রাজপথে নেমে এসেছেন শান্তিকামী আমেরিকানরা। প্রতিবাদকারীদের মাঝে শ্বেতাঙ্গ-কৃষ্ণাঙ্গ সবাই আছেন। ট্রাম্প প্রশাসনের বর্ণবাদী আচরণ নিয়ে সর্বত্র সমালোচনা হচ্ছে। শান্তিকামী মানুষ চাইছেন পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হোক বর্ণবাদ। কিন্তু আলেক্সান্দার কাতাইয়ের স্ত্রী করেছেন উল্টো কাজ।

টি কাতাই নামের ওই নারী নিজে শ্বেতাঙ্গ এবং বর্ণবাদীও বটে। বিক্ষোভ ও দাঙ্গা দেখে টি কাতাই তার ইন্সটাগ্রামে একের পর এক বর্ণবাদী পোস্ট করেছেন। একটি পোস্টে তিনি লিখেন, 'এই প্রতিবাদকারীদের খুন করা উচিত।' আরেকটি ছবিতে কৃষ্ণাঙ্গদের 'জঘন্য গবাদি পশু' বলেছেন। এছাড়া বর্ণবাদী মিমও পোস্ট করেছেন তিনি। গত বুধবার এসব পোস্টের পর উত্তপ্ত হয়ে পড়ে সোশ্যাল সাইট। এল গ্যালাক্সির সমর্থকেরা স্টেডিয়ামের বাইরে এসে 'আমাদের ক্লাবে কোনো বর্ণবাদী থাকবে না' প্ল্যাকার্ড নিয়ে এসে ক্লাব থেকে কাতাইকে বাদ দেওয়ার দাবি জানান।

দ্রুতই নড়েচড়ে বসে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। ক্লাবের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এমন বর্ণবিদ্বেষী আচরণের নিন্দা জানানো হয় এবং টি কাতাইকে পোস্ট মুছে ফেলার অনুরোধ জানানো হয়। এমনকী আলেক্সান্দার কাতাই পর্যন্ত সোশ্যাল সাইটে লিখেন, 'আমি এমন মানসিকতার নই এবং আমার পরিবারেও এসব সহ্য করা হয় না। আমার পরিবার একটা ভুল করেছে এবং আমি এর পূর্ণ দায়ভার নিচ্ছি।' তবে তার এই ক্ষমা প্রার্থনা কাজে দেয়নি। গতকাল শুক্রবার এলএ গ্যালাক্সি তার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে।

চুক্তির ৬ মাস যেতে না যেতেই মাত্র ২টি ম্যাচ খেলেই বিদায় নিতে হলো কাতাইকে। এখন মেজর লিগ সকারের কোনো দল তাকে নেবে বলে মনে হয় না। বেচারার ক্যারিয়ারটাই হুমকির মুখে পড়ে গেল। চুক্তি হারানোর পর ২৯ বছর বয়সী এই সার্বিয়ান ফুটবলার এক বিবৃতিতে বলেছেন, 'আমি নিশ্চিত করছি আমি এবং আমার পরিবার কৃষ্ণাঙ্গদের ব্যাপারে জানা, শেখা, শোনা ও সাহায্য করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেব। এমন পোস্টের কারণে এলএ গ্যালাক্সি পরিবার ও বর্ণ বৈষম্যের আচরণের বিরুদ্ধে যাঁরা লড়ছেন তাঁরা যে কষ্ট পেয়েছেন, সে জন্য দুঃখিত।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা