kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

উইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ জুন, ২০২০ ২১:২৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



উইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে

করোভাইরাসের কারণে গত মার্চ থেকে সকল ক্রিকেট লড়াই স্থগিত। তবে আগামী ৮ জুলাই থেকে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রায় তিন মাস পর করোনা পরবর্তী এই প্রথম ২২ গজে ব্যাট-বলের লড়াই দেখতে ক্রিকেটপ্রেমীরা। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে সতর্ক সর্তক উচ্চারণ করলেন ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যান ররি বার্নস। তিনি বলেন, উইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে।

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন ধরেই ইংল্যান্ডে লকডাউন ছিল। তবে লকডাউন উঠিয়ে নিয়ে ক্রীড়াযজ্ঞ শুরুর অনুমতি দেয় ব্রিটিশ সরকার। ইতোমধ্যে ইংলিশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ শুরুর অনুমতিও দিয়েছে তারা। ১৭ জুন থেকে মাঠে গড়াচ্ছে ইপিএল। তাহলে ক্রিকেট কেন বাদ যাবে? এজন্য উইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে পুনরায় ক্রিকেটকে মাঠে ফেরাচ্ছে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজকে সামনে রেখে অনুশীলন শুরুর জন্য ৫৫ জনের তালিকা করেছে ইসিবি। সেই অনুশীলনের তালিকায় নাম আছে বার্নসের। মূল স্কোয়াডে সুযোগ পাবার স্বপ্নও দেখছেন তিনি। গত জানুয়ারিতে কেপ টাউনে অনুশীলনের সময় ফুটবল খেলতে গিয়ে বার্নসের পায়ের গোড়ালির লিগামেন্ট ছিড়ে যায়। এরপর থেকেই চিকিৎসকের শরনাপন্ন ছিলেন তিনি। তবে গত কয়েক মাসে সুস্থ হয়ে উঠেছেন এই ব্যাটসম্যান। তাই উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আবারো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার স্বপ্ন তার।

তবে উইন্ডিজের বিপক্ষে আসন্ন টেস্ট সিরিজটি ইংল্যান্ডের জন্য কঠিনই হবে বলে মনে করেন বার্নস। কারন সর্বশেষ মোকাবেলায় উইন্ডিজের কাছে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে হারে ইংল্যান্ড। অবশ্য সিরিজটি গত বছর উইন্ডিজের মাটিতেই অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই স্মৃতি মাথায় রেখে স্কাই ক্রিকেট শোকে বার্নস বলেন, 'সর্বশেষ লড়াইয়ে আমাদের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতেছিল। তাদের বোলিং আক্রমণ আমাদের অনেক সমস্যায় ফেলেছিল। তারা খুবই দক্ষ এবং তাদের বোলারদের গতি আছে।'

আগামী ৯ জুন চার্টার্ড বিমানে ইংল্যান্ডে পৌছাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২৫ সদস্যের দল থেকে ১৪ জন মূল স্কোয়াডে থাকবে। বাকি ১১জন থাকবে রির্জাভ বেঞ্চে। কোনো ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হলে ওই ১১ জন থেকে বদলি আনা হবে। উইন্ডিজের বিপক্ষে গত সিরিজে বার্নসের ব্যাটিং গড় ছিল ২৪.১৬। বার্নস বলেন, 'তাদের দলে অনেক ভালো ক্রিকেটার রয়েছে এবং তবে যাই হোক-না কেন, এটি আমাদের জন্য একটি কঠিন পরীক্ষা হতে চলেছে।'

ইংল্যান্ড পৌঁছে ওল্ড টার্ফোডে দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে থাকার পর এক সপ্তাহ অনুশীলন করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৮ জুলাই সাউদাম্পঠনে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। পরের দুই টেস্ট ১৬ ও ২৪ জুলাই ওল্ড ট্রার্ফোডে। সব ম্যাচ হবে রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে ও জীবাণুমুক্ত পরিবেশে। করোনাভাইরাসের কারণে ইংল্যান্ড সফরে যাননি ড্যারেন ব্রাভো, শিমরন হেটমায়ার ও কিমো পল। কিন্তু বার্নস জানান, ইসিবির পক্ষ থেকে তাকে ও তার সতীর্থদের জন্য বায়ো সুরক্ষিত পরিবেশের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা