kalerkantho

সোমবার । ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ১  জুন ২০২০। ৮ শাওয়াল ১৪৪১

করোনায় ভয়ানক মানসিক বিপর্যয়ে আক্রান্ত ফেলপস!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মে, ২০২০ ১৭:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় ভয়ানক মানসিক বিপর্যয়ে আক্রান্ত ফেলপস!

করোনাভাইরাসের কারণে মানুষ এখন ঘরবন্দি। স্বাভাবিক জীবনযাপন স্তব্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকেই মানসিক অস্থিরতায় ভূগছেন। তাদের মাঝে অন্যতম কিংবদন্তি সাঁতারু মাইকেল ফেলপস। করোনাভাইরাস অতিমারিতে তিনি রীতিমতো আতঙ্কিত। অবিশ্বাস্য ২৩টি অলিম্পিক্স সোনার মালিক সকলের সঙ্গে জিমে বা সুইমিং পুলে না-থাকার যন্ত্রণা আর নিতে পারছেন না।

মিডিয়ায় নিজের ধারাবাহিক কলামে লিখেছেন, 'আমার মেজাজে বার বার পরিবর্তন ঘটছে। মনটাও চূড়ান্ত বিক্ষিপ্ত হয়ে রয়েছে। অতীতের অনেক অবসাদের মাস যেন ফিরে এসেছে আমার জীবনে। জীবনে অনেক খারাপ সময়ের মধ্যে গেছি। কিন্তু অতিমারির এই সময়টার মতো এতটা ভয় কখনও পাইনি। ভাগ্য খুব ভাল তাই আমি আর আমার পরিবার নিরাপদে আছি। নিভৃতবাসের যন্ত্রণা নেই।'

২০১৬ রিও অলিম্পিকের পর অবসর নিয়ে ফেলপস বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায়, মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে বক্তব্য দিয়ে বেড়ান। বহু জায়গায় তিনি বলেছেন, কী ভাবে তার স্ত্রী নিকোলের সঙ্গ এবং মানসিক চিকিৎসা তাকে জীবনের বিভিন্ন অবসাদের পর্ব থেকে বের করে এনেছে। লকডাউনের আগে তিনি প্রতিদিন সকালে ৯০ মিনিট জিমে কাটাতেন। কিন্তু লকডাউনের জন্য সেটা আর করতে পারছেন না। 

ফেলপস লিখেছেন, 'মনে হয় আমি এক যুদ্ধ করছি। মনে হয়, আমার প্রতিটি দিনই যেন নষ্ট হয়ে গেল। পুরো ব্যাপারটাই আমার কাছে মারাত্মক কোনো বিপর্যয়ের মতো। আবার মাথার মধ্যে ভিড় করে আসছে নানা নেতিবাচক চিন্তা। আর সেটা যখন হচ্ছে, তখন আমি ছাড়া নিজেকে অন্য কেউ অন্ধকার থেকে বার করতে পারছে না। নিজেকে এই কঠিন মানসিক অবস্থা থেকে টেনে আনতেও অনেকটা সময় লেগে যাচ্ছে। 
 
কিংবদন্তি এই সাঁতারু আরও লিখেছেন, 'মানসিক অবসাদ কাটিয়ে ওঠার জন্য প্রতিবারই যেন আমি নিজেকে কঠিন কিছু শাস্তি দিচ্ছি। আসলে জীবনে যতবার কোনো ভুল করেছি, ততবারই আমি একইভাবে নিজেকে ঠিক করার চেষ্টা করেছি। এই ধরনের পরিস্থিতিতে কাউকে যদি আমি কোনো মানসিক আঘাত করি, তাহলে সেটা সম্পূর্ণ আমার দোষ। দিনের পর দিন একই ভাবে কাটছে। আমি নিজেকে এক আতঙ্কের পরিবেশে এনে ফেলে দিয়েছি!'

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা