kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

কোহলিকে রাগাতে নিষেধ করলেন পাকিস্তানের রশিদ লতিফ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ এপ্রিল, ২০২০ ১৯:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোহলিকে রাগাতে নিষেধ করলেন পাকিস্তানের রশিদ লতিফ

ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে রাগিয়ে দিয়ে তার পারফরমেন্স বহুগুণ বেড়ে যায়- এটা সবাই জানে। কোহলিকে ক্রিজে স্লেজিং করা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ নয়। সম্প্রতি এমন কথা বলেছেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক টিম পেইন। এবার পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার রশিদ লতিফ নিজের ইউটিউব চ্যানেলে কোহলিকে রাগাতে নিষেধ করলেন। প্রমাণ হিসবে রীতিমতো উদাহরণও দিয়েছেন তিনি।

প্রথম উদাহরণ ২০১৪ সালে ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফরের সময়কার। রশিদ বলেছেন, '২০১৪ সালের সিরিজে ধোনি যখন ২টি টেস্ট খেলার পর অবসর নিল, সেই সিরিজের তৃতীয় টেস্টের দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করেছিল কোহলি। আর একটা মাত্র টেস্ট বাকি ছিল।  সেই টেস্টে মিচেল জনসন আর কোহলির মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়েছিল। সেই ক্লিপ আরো একবার দেখো। কোহলি কেমনভাবে আক্রমণাত্মক ভাবে জবাব দিয়েছিল।'

আসল ঘটনা হলো ধোনি সিরিজের তৃতীয় টেস্ট খেলার পর সরে দাঁড়ান। কোহলি তৃতীয় ও চতুর্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করেন। যাই হোক, রশিদ লতিফ বলেছেন, 'কয়েকজন ক্রিকেটারকে মাঠে মোটেই ঘাঁটানো উচিত নয়, যেমন জাভেদ ভাই (জাভেদ মিয়াঁদাদ), ভিভ রিচার্ডস, সুনীল গাভাস্কার। বিরাট কোহলিও এমন একজন ক্রিকেটার।'

দ্বিতীয় দৃষ্টান্তটি গত বছরের, 'সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একটি টি টোয়েন্টি ম্যাচে একজন বাঁ হাতি বোলার (কেসরিক উইলিয়ামস) কোহলিকে মাঠেই কিছু কথা বলেছিল। যদিও টি টোয়েন্টিতে কোহলি বেশি রান করেন না। সেই ম্যাচে কিন্তু সেই বোলারকে তুলোধোনা করে ছেড়েছিল ও। বিশ্বের এমন কিছু ক্রিকেটার রয়েছে যাদের মাঠে চ্যালেঞ্জ করতে নেই।' আসল ঘটনা হলো ২০১৭ সালে জ্যামাইকায় কোহলিকে আউট করে কেসরিক উইলিয়ামস কোহলিকে তার ট্রেডমার্ক নোটবুক সেন্ড অফ জানিয়েছিলেন। দুই বছর পর ছক্কা মেরে একইভাবে সেলিব্রেশন করে এর বদলা নেন কোহলি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা