kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

আজহারউদ্দিনের একটি সিদ্ধান্তে ক্রিকেটবিশ্ব পেয়েছে একশ সেঞ্চুরির মালিককে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩১ মার্চ, ২০২০ ১৮:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আজহারউদ্দিনের একটি সিদ্ধান্তে ক্রিকেটবিশ্ব পেয়েছে একশ সেঞ্চুরির মালিককে

ওয়ানডেতে অভিষেকের পরে প্রথম ৫ বছর সেঞ্চুরি পাননি ভারতের 'লিটল মাস্টার'। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অকল্যান্ডে ওপেন করতে নেমে প্রথম ম্যাচেই শচীন ৪৯ বলে ৮২ রানের ইনিংস খেলেন। কিন্তু শচীনকে ব্যাটিং অর্ডারে আগে পাঠানোর সিদ্ধান্ত কেন নেওয়া হয়েছিল? সিদ্ধান্তটা আসলে মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের। এই একটি সঠিক সিদ্ধান্ত  শচীন টেন্ডুলকারের ক্রিকেট ক্যারিয়ার বদলে দিয়েছিল। বদলে দিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটকে।

ওয়ানডেতে 'মাস্টার ব্লাস্টার' আগে ব্যাটক করতেন ৫-৬ নম্বরে। সেখান থেকে তাকে ওপেন করতে পাঠিয়েছিলেন আজহার। আর ওই একটা সিদ্ধান্তের ফলে বিশ্ব ক্রিকেট পেয়েছিল একশো সেঞ্চুরির মালিককে। আর শচীন ওপেন করতে নামা মানেই প্রথম থেকে প্রতিপক্ষ বোলাররা ভীত সন্ত্রস্ত থাকত। প্রথম বল থেকেই আক্রমণ করতেন। বড় রানের ভিত গড়তে সাহায্য করতেন দলকে। ওপেন করতে নেমে শচীন বহু ম্যাচ জিতিয়েছেন ভারতকে। অথচ শুরুতে তার ব্যাট থেকে বড় রান আসত না। 

আজহার বলেন, '৫-৬ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে বড় রান পাচ্ছিল না শচীন। এটা আমি লক্ষ্য করেছিলাম। সেই কারণে আমি আর অজিত (ওয়াদেকর) স্যার শচীনকে ওপেন করতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।' ব্যাটিং অর্ডারে 'লিটল মাস্টার'কে উপরে তুলে আনতে কি লড়াই করতে হয়েছিল আজহারকে? ভারতের সাবেক অধিনায়ক বলেন, 'শচীন এক বাক্যেই রাজি হয়ে গিয়েছিল। আর শচীন ওপেন করতে রাজি হওয়ায় আমরাও সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানকে পেয়েছিলাম।'

সেই সময়ে শচীনকে ওপেন করতে পাঠানো নিয়ে অনেক কথা হয়েছিল। অনেকেই প্রশ্ন করেছিলেন যে, শচীনের কি নতুন বল সামলানোর মতো টেকনিক আছে? প্রতিপক্ষের সেরা বোলারদের শুরুতেই সামলানোর মতো জমাটি ডিফেন্স কি আছে মাস্টার ব্লাস্টারের? আজহার বলেন, 'আমি জানতাম, শচীনের ওপেন করার মতো প্রতিভা রয়েছে। আর শচীন ওপেন করতে রাজি হয়ে যাওয়ায় আমরাও সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানকে পেয়েছিলাম।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা