kalerkantho

সোমবার  । ১৬ চৈত্র ১৪২৬। ৩০ মার্চ ২০২০। ৪ শাবান ১৪৪১

প্রোটিয়া দর্শকদের বিদ্রুপ সামলাতে স্মিথ-ওয়ার্নার প্রস্তুত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২২:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রোটিয়া দর্শকদের বিদ্রুপ সামলাতে স্মিথ-ওয়ার্নার প্রস্তুত

২০১৮ সালের ২৪ মার্চ, অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের একটি কালো দিন। যা বয়ে এনেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন বেনক্রফট। কেপ টাউনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৪ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টেস্টে বল বিকৃতি করেন এই তিন অজি ক্রিকেটার। বল বিকৃতির আসল নায়ক ছিলেন ওয়ার্নার। তার সাথে জড়িত ছিলেন স্মিথ-বেনক্রফট। অপরিচিত হওয়ায় বেনক্রফটকে দিয়ে বল টেম্পারিং করান স্মিথ-ওয়ার্নার। সেটি টিভি ক্যামেরায় ধরা পড়লে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেন তিনজনকে।

এই অপকর্ম করে স্মিথ-ওয়ার্নার ও বেনক্রফটকে। স্মিথ-ওয়ার্নার এক বছরের জন্য ও বেনক্রফট নয় মাসের জন্য সবধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হন। নিষেধাজ্ঞা শেষে মাঠেও ফিরেছেন স্মিথ-ওয়ার্নার ও বেনক্রফট। অ্যাশেজ-ওয়ানডে বিশ্বকাপ মাতিয়ে এখন দলের সেরা খেলোয়াড় স্মিথ-ওয়ার্নার। বিশ্বের যে প্রান্তে খেলেছেন রানের ফুলঝুড়ি ফুটিয়েছেন স্মিথ-ওয়ার্নার। তিন ফরম্যাটেই কথা বলেছে তাদেন ব্যাট। তবে কেপ টাউন কান্ডের পর দেশের হয়ে মাত্র দুটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন বেনক্রফট। সেগুলো অ্যাশেজে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। কিন্তু ব্যাট হাতে সুবিধা করতে না পারায় দল থেকে ছিটকে পড়েন।

প্রায় দুই বছর আগে বল বিকৃতির দুঃস্মৃতিকে পেছনে ফেলে আবারো সেই দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে পা রাখলেন স্মিথ-ওয়ার্নার। টি-২০ সিরিজ দিয়ে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে লড়াই শুরু করতে যাচ্ছেন তারা। অবশ্য এবারের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ছাড়াও ওয়ানডে সিরিজ খেলবে অস্ট্রেলিয়া। স্মিথ-ওয়ার্নারের বল বিকৃতি কান্ডের পর এই প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকার সফরে এলো অসিরা। এখানে আসার পর উষ্ণ অভ্যর্থনাই পায় অসিরা। স্মিথ-ওয়ার্নারকে সাদরে বরণ করে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।

অবশ্য মাঠে স্মিথ-ওয়ার্নারের প্রতি দর্শকরা কেমন আচরণ করেন সেটিই এখন দেখার বিষয়। যদিও প্রোটিয়া বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, 'দক্ষিণ আফ্রিকার সমর্থকদের কাছ থেকে আমি প্রতিপক্ষের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের আহবান জানাচ্ছি। কোনো ধরনের প্ল্যাকার্ড আনা যাবে না। খেলার বাইরে আমাদের অন্য কিছুর প্রয়োজন নেই। ক্রীড়াঙ্গনে এ ধরনের খারাপ আচরণের দরকার নেই। দর্শক আচরণ বিষয়ে আমাদের খুব কঠোর একটা নীতি আছে এবং খারাপ আচরণকারীদের আমরা মাঠ থেকে বের করে দিব।'

প্রোটিয়া বোর্ড যতই বলুক না কেন, স্মিথ বুঝে গেছেন মাঠে কোন পরিস্থিতিতে পড়বেন তিনি। তাই নিজেকে তৈরি করছেন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য। স্টিভেন স্মিথ বলেন, 'কোনো সন্দেহ নেই এবং আমি মনে করেছি, তারা আমাদের প্রতি খুবই বাজে আচরণ করবে। সত্যি বলছি, এ ধরনের কোনো কিছুরই মুখোমুখি হইনি।'

দক্ষিণ আফ্রিকায় পা রেখে ওয়ার্নার বলেন, ‘আমরা জানি পরিস্থিতি কেমন হতে পারে। যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য আমরা প্রস্তুত। তবে যাই হোক-না কেন, আমরা শান্ত থাকবো। আমাদের ফোকাস থাকবে ক্রিকেটের দিকে। ব্যাট-বল হাতে পারফরমেন্স করে দলকে সাফল্য এনে দেয়াই আমাদের মূল কাজ।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা