kalerkantho

শনিবার । ২১ চৈত্র ১৪২৬। ৪ এপ্রিল ২০২০। ৯ শাবান ১৪৪১

সাঈফ বুঝলেন ঘরোয়া আর টেস্ট ক্রিকেটের বিশাল পার্থক্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২১:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাঈফ বুঝলেন ঘরোয়া আর টেস্ট ক্রিকেটের বিশাল পার্থক্য

টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্যের জন্য আরও বেশি মনোযোগী হতে চান বাংলাদেশ দলের তরুণ ওপেনার সাইফ হাসান। এই সংস্করণে সাম্প্রতিক সময়ে তামিম ইকবাল ছাড়া ওপেনার হিসেবে অন্য কেউ তে,ন একটা ভাল করতে পারছেন না। যেখানে তামিম একাই ধারাবাহিক । ঘরোয়া আসরে বড় ইনিংস খেলার খ্যাতি রয়েছে সাইফের। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে নিজেকে পুরোপুরিভাবে মেলে ধরতে পারেননি তিনি।

রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের প্রথম ইনিংসে দুই বল খেলে সাঈফ আউট হন ০ রানে। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৫ বলে ১৬ রান করেন তিনি।অভিষেক ম্যাচের অভিজ্ঞতা থেকে সাইফ মনে করছেন,আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের মধ্যে অনেক পার্থক্য। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাফল্য অর্জনে নিজের উইকেটের গুরুত্ব বাড়ানোর প্রয়োজন। একই সাথে, সাইফ বুঝতে পেরেছেন একজন সফল টেস্ট ব্যাটসম্যান হতে হলে অনুশীলন পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনতে হবে এবং উপায়ও পেয়ে গেছেন তিনি।

আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের অনুশীলন শেষে সাইফ বলেন, 'অবশ্যই এতটা সহজ হবে না। কিন্তু এই লেভেলে আসার জন্যই সব কিছু করা। চেষ্টা করব। সামনের ম্যাচে যদি সুযোগ আসে, ভালো খেলার চেষ্টা করব। সহজ হবে না বলতে, আমরা যেভাবে খেলে আসছি ঘরোয়া ক্রিকেটে, সেদিক থেকে চিন্তা করলে অত সহজ না। আমাদের সেভাবেই মানসিকভাবে তৈরি হতে হবে। প্রস্তুতি খুব ভালো হচ্ছে জাতীয় দলের। সুযোগ পেলে রান বড় করতে হবে।'

এই উপলব্ধির পর নিজেকে ভিন্নভাবে তৈরিও করছেন সাইফ, 'অনুশীলন পদ্ধতি পরিবর্তন করতে হবে। যখন আমি নেটে ব্যাট করব, আউট হওয়া থেকে আমাদের আরও বেশি সর্তক হতে হবে। যদি আমি নেটে সেশনে এটি অভ্যাস করতে পারি তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেটি অনেক উপকারে আসবে।  তাই আমি যখনই নেট সেশন করতে আসি, আমি চেষ্টা করেছি নতুন বলে আউট না হতে এবং যতটা পেরেছি আমি বল খেলেছি। আমি নেটে সেশন বাই সেশন খেলার চেষ্টা করেছি এবং এভাবেই অনুশীলন চালিয়ে গিয়েছি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা