kalerkantho

শনিবার । ২১ চৈত্র ১৪২৬। ৪ এপ্রিল ২০২০। ৯ শাবান ১৪৪১

চেক রিপাবলিকের জাতীয় দলে মেহেরপুরের সোহাস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:১৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চেক রিপাবলিকের জাতীয় দলে মেহেরপুরের সোহাস

আবুল হুসাইন মো. শাহ্ ফরহাদ সোহাস

চেক রিপাবলিকের জাতীয় দলে মনোনীত বাংলাদেশের মেহেরপুরের আবুল হুসাইন মো. শাহ্ ফরহাদ সোহাস। গত ১০ ফেব্রুয়ারি চেক রিপাবলিক জাতীয় ক্রিকেট দলের টিম ম্যানেজার ভোসতে হাসা এ বিষয়টি মেইল প্রেরণের মাধ্যমে নিশ্চিত করেন।

সোহাস মেহেরপুর সদর উপজেলার রাধাকান্তপুর গ্রামের আবুল কাশেম মাস্টারের ছোট ছেলে। ২০১৬ সালের শেষের দিকে স্কলারশিপ পেয়ে চেক রিপাবলিকে উচ্চ শিক্ষার জন্য পাড়ি দেন। এখন তিনি ইউনিভার্সিটি অফ দ্য ওয়েস্ট অফ স্কোটল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে (ডিসটেন্স লার্নিং প্রোগ্রাম) লন্ডন শাখায় এমবিএ অধ্যায়নরত। পাশাপাশি রেস্তোরাঁ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত আছেন।

উল্লেখ্য, তিনি উচ্চ শিক্ষার জন্য ২০০৯ সালের নভেম্বরে লন্ডন পাড়ি দেন সেখান থেকেই তিনি আন্ডার গ্র্যাজুয়েশন শেষ করেন। লন্ডনে থাকা অবস্থায় ইউনিভার্সিটি ক্রিকেট লীগের সঙ্গে নিজে সম্পৃক্ত হোন। এরপর থেকেই লন্ডনে ক্লাব ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

এদিকে ২০১৯ সালে চেক রিপাবলিকে নিজে ক্লাব ক্রিকেটের সঙ্গে আবার যুক্ত হোন। সেখানে তার ব্যাটিং ও বোলিং এবং ফিল্ডিং তিন বিভাগের পারফরম্যান্স টিম সিলেক্টরদের নজর কাড়ে। এরপর ফেব্রুয়ারি ১০ তারিখে অফিসিয়ালি চেক রিপাবলিক জাতীয় ক্রিকেট বোর্ড তাকে জাতীয় ক্রিকেট দলে ২০২০ সালের জন্য চুক্তিবদ্ধ করে।

চেক রিপাবলিকের ক্রিকেট দলের আসন্ন ম্যাচগুলোর মধ্যে রয়েছে আগামী ৮ জুন ২০২০ মেন্স টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ ইউরোপিয়ান কোয়ালিফায়ার আয়োজনে বেলজিয়াম এবং মে ২০২০ মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ, যা অনুষ্ঠিত হবে ডেনমার্কে।

সোহাসের বড় ভাই হাসনাত শাহীন জানান,  তার প্রতিভা ছিল ছোট থেকেই খুব ভালো খেলত সোহাস। আমাদের বিশ্বাস ছিল এক সময় বাংলাদেশ জাতীয় দলে খেলবে। কিন্তু পড়াশোনার কারণে ইংল্যান্ডে চলে যায়। যে কারণে বাংলাদেশে আর খেলা সম্ভব হয়নি। ইংল্যান্ডে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করে। পরবর্তীতে উচ্চ শিক্ষার জন্য চেক রিপাবলিকে চলে আসে। সেখানে ক্লাব পর্যায়ে ক্রিকেট খেলা শুরু করে। গত ১০ ফেব্রুয়ারি সে চেক রিপাবলিকে জাতীয় দলে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিবদ্ধ হয়। এটা আমাদের জন্য খুবই আনন্দের বিষয়। আমরা গর্বিত। 

এছাড়া সোহাসের বড় ভাই তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখন- আমার বিশ্বাস, চেক রিপাবলিকের ক্রিকেট বোর্ডের আস্থার প্রতিদানে তুমি ষোলআনা ঢেলে দিবে! আর, অতিসত্ত্বর নিয়মিত অনুশীলনের মাধ্যমে বর্তমানের বোলিংয়ের সর্বোচ্চ গতি (বহুদিন পরে খেলার কারণে) ঘণ্টায় ১৪৬ কি.মি ওঠে যাবে! এবং তার সঙ্গে মিলিয়ে নিবে ছোটবেলার সেই ভয়ানক লেগকাটার কিংবা অফকাটারের কৌশল!!!

আশা করি, ওপেনিংয়ে বোলিংয়ের পাশাপাশি একদিন চেক রিপাবলিকের হয়ে ওপেনিংয়ে ব্যাটিংও করবে! সঙ্গে থাকবে সেই সুপার ফিল্ডিং!!!

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা