kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৯ চৈত্র ১৪২৬। ২ এপ্রিল ২০২০। ৭ শাবান ১৪৪১

বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন অবলম্বনে

বাংলাদেশের 'প্রিয় প্রতিপক্ষ'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৯:৪৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাংলাদেশের 'প্রিয় প্রতিপক্ষ'

গত এক বছরে হারতে হারতে খাদের কিনারায় চলে গেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। হুট করেই যেন দলের পরিস্থিতি অগোছালো হয়ে গেছে। এমতাবস্থায় বাংলাদেশ সফরে এসেছে জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৪৪টি ওয়ানডে ম্যাচ জিতেছে। গত বছর বিশ্বকাপের পরেও জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশে সফরে এসেছিল। এর আগে ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশে এসে সিরিজ খেলে যায়। ২০০১ সাল থেকে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে মোট ১৬টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে একে অপরের বিপক্ষে।

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলেছে ৭২টি ম্যাচ যেটা সর্বোচ্চ। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সমান ২১ ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে ৩৬টি, পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩৭টি, নিউজিল্যান্ডের সাথে ৩৫টি এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে ৩৮টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের পরে শ্রীলঙ্কার সাথে ম্যাচ খেলেছে সবচেয়ে বেশি, ৪৮টি। ওয়ানডে ফর‍ম্যাটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জয় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে, ৪৪টি। অন্য কোনো দলের বিপক্ষে ১৫টির বেশি ওয়ানডে ম্যাচে জয় পায়নি বাংলাদেশ।

২০১৮ সালেই দুই দফায় জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশ সফরে আসে ওয়ানডে খেলতে। টেস্টে অবশ্য বাংলাদেশের সঙ্গে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছে শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কার সাথে বাংলাদেশ ২০টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে, এর মধ্যে টেস্ট ফরম্যাট থেকে নির্বাসনে থাকার পরেও জিম্বাবুয়ের সাথে বাংলাদেশ টেস্ট খেলেছে ১৬টি, একই পরিমাণ টেস্ট খেলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশের তালিকায় ওপরের দিকেই। পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১২টি করে টি টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ে, ভারত ও শ্রীলঙ্কার সাথে খেলেছে ১১টি করে ম্যাচ। জিম্বাবুয়ের সাথে জয়ও সবচেয়ে বেশি, সাত ম্যাচে।

 

২০১৪ সালের পর বাংলাদেশ আর জিম্বাবুয়ের সাথে হারেনি এবং ম্যাচগুলো হয়েছে বাংলাদেশের মাটিতেই। ভারত ও পাকিস্তানের সাথে টেস্ট ও টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে হারের পর যখন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের সূচি প্রকাশ করা হয় তখনই বাংলাদেশের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা ও সমালোচনা দেখা যায়। অনেক ভক্তই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের যে নেতিবাচক ফর্ম সেটাকে পরিবর্তনের একটা উপায় হিসেবে দেখছেন। এই সিরিজ জিতে দল ফর্মে ফিরেছে বলে দাবি করা হবে।

বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থক গোষ্ঠী দৌড়া বাঘ আইলোর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম দেখেন তানভীর আহমেদ প্রান্ত বলেন, 'বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জন্য এই সিরিজগুলো একেকটা এস্কেপ রুট।'

দর্শক হিসেবে খুব একটা আগ্রহ বা আলাদা কোনো প্রত্যাশা থাকেনা বলেই জানিয়েছেন তানভীর ও আরেক ভক্ত মাহনাজ কবির।তানভীর বলেন, এই ধরণের খেলাগুলোয় খুব বেশি প্রতিযোগিতা থাকেনা। জিম্বাবুয়ে যদিও ২০১৮ সালে বাংলাদেশের মাটিতে টেস্ট জিতেছিল কিন্তু ওয়ানডেতে তেমন জেতেনি। মাহনাজ কবির বলেন, 'আমরা ইংল্যান্ড, ইন্ডিয়া বা অস্ট্রেলিয়ার মতো প্রতিপক্ষের জন্য অপেক্ষা করে থাকি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা