kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

টি-টোয়েন্টি সিরিজ

প্রোটিয়াদের হারিয়ে ইংল্যান্ডের সিরিজ জয়

অপরাজিত মরগানের ২২ বলে ৫৭ রান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১২:২৩ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



প্রোটিয়াদের হারিয়ে ইংল্যান্ডের সিরিজ জয়

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে খেলতে নেমে ২২৩ রানের বিশাল টার্গেট তাড়া করতে নেমে দাপুটে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। পাঁচ বল হাতে রেখেই ৫ উইকেটের জয়ে ট্রফি জিতে নিল ইংল্যান্ড।

মাঠে ইয়ন মরগান রীতিমতো তাণ্ডব চালান। তিনি মাত্র ২২ বলে ৭টি ছক্কায় অপরাজিত ৫৭ রানের ইনিংস খেলেন।

সিরিজের প্রথম খেলায় হেরে গেলেও পরবর্তী দুই ম্যাচ জিতে শিরোপা নিজেদের করে নেয় ইংল্যান্ড। দক্ষিণ আফ্রিকার সেঞ্চুরিয়নের সুপার স্পোর্টস পার্কে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন আফ্রিকান অধিনায়ক ডি কক।

রবিবার খেলার শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৬ উইকেটে ২২২ রানের পাহাড় গড়ে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। টিম্বা বাভুমাকে সঙ্গে নিয়ে ৭.৪ ওভারে ১১.৩৫ গড়ে উদ্বোধনী জুটিতে ৮৪ রান করেন অধিনায়ক কুইন্টন ডি কক। এরপর মাত্র ২ রানের ব্যবধানে দুই ওপেনারের উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

ডি কক ২৪ বলে ৪টি দৃষ্টিনন্দন ছক্কা আর এক চারের সাহায্যে ৩৫ রান করে আউট হন বেন স্টকের বলে। স্কয়ার লেগের ওপর দিয়ে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে আউট হন তিনি।

ডি কক বিদায় নিলে মাত্র ২ রানের ব্যবধানে ফেরেন দুর্দান্ত ব্যাটিং করে যাওয়া টিম্বা বাভুমা। আদিল রশিদের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ২৪ বলে ৩টি ছয় আর চারটি চারের সাহায্যে ৪৯ রান করে ফেনের বাভুমা।

এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৩ বলে ৪ ছক্কা ও ৪টি চারের সাহায্যে দলীয় সর্বোচ্চ ৬৬ রান করে ফেরেন হেনরিক ক্লাসেন। দলীয় ১২তম ওভারে পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের শেষ পর্যন্ত খেলেন ডেভিড মিলার। ২০ বলে তিনচার ও দুটি ছক্কায় অপরাজিত ৩৫ রান করেন মিলার।

২২৩ রানের পাহাড় ডিঙাতে নেমে দলীয় ১৫ রানে ওপেনার জেসন রয়ের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় উইকেটে জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে ব্যাটিং তাণ্ডব চালিয়ে ৪৯ বলে ৯১ রানের জুটি গড়েন অন্য ওপেনার জস বাটলার। দলীয় ১০৬ রানে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন বাটলার। তার আগে ২৯ বলে ৯টি চার ও দুই ছক্কায় ৫৭ রান করেন তিনি। ৩৪ বলে ৭টি চার ও তিন ছক্কায় ৬৪ রান করে ফেরেন জনি বেয়ারস্টো।

শেষ ৩৬ বলে ইংল্যান্ডের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৭৬ রান। খেলার এমন অবস্থায় ১২.৬৬ গড়ে রান তুলতে গিয়ে ব্যাটিং তাণ্ডব শুরু করেন ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ন মরগান। ১৫তম ওভারে ডোয়েন পিটোরিয়াসকে দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে ১৫ রান আদায় করে নেন মরগান। পরের ওভারে ডেল স্টেইনের বলে এক ছক্কা হাঁকিয়ে আদায় করেন ৯ রান।

শেষ পর্যন্ত ২৪ বলে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ৫৩ রান। ১৭তম ওভারে লুঙ্গি এনডিগির বলে দুটি ছক্কা আর একটি চার হাঁকিয়ে ২০ রান আদায় করেন মরগান। পরের ওভারে আন্দিল ফেহালুকাওয়ের বলে দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে ১৬ রান আদায় করেন বেন স্টোকস।

শেষ ১২ বলে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ১৭ রান। ১৯তম ওভারের প্রথম বলে বেন স্টোকসের উইকেট হারালেও লুঙ্গি এনডিগির চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ১৬ রান আদায় করেন মরগান।

ইংল্যান্ডের জয়ের জন্য শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল মাত্র ১ রান। ফেহালুকাওয়ের প্রথম বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করেন মঈন আলী।

স্কোর

দক্ষিণ আফ্রিকা
২০ ওভারে ২২২/৬ (ক্লাসেন ৬৬, বাভুমা ৪৯, মিলার ৩৫*, ডি কক ৩৫)।

ইংল্যান্ড
১৯.১ ওভারে ২২৬/৫ (জনি বেয়ারস্টো ৬৪, মরগান ৫৭*, বাটলার ৫৭)।

ফল

ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী। ৩ ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ড ২-১ ব্যবধানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : ইয়ন মরগান

ম্যান অব দ্য সিরিজ : ইয়ন মরগান

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা