kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ চৈত্র ১৪২৬। ৩১ মার্চ ২০২০। ৫ শাবান ১৪৪১

এক সপ্তাহে দুই বিশ্বরেকর্ড 'নতুন বুবকা'র

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৮:৫১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এক সপ্তাহে দুই বিশ্বরেকর্ড 'নতুন বুবকা'র

নিজের বিশ্বরেকর্ডই ভেঙেছেন ৩৫ বার! এমন কীর্তিতে পোল ভল্টে অমর সের্গেই বুবকা। ইউক্রেনের এই কিংবদন্তির সময়ের বিখ্যাত আরেক পোল ভল্টার গ্রেগ ডুপলান্টিস। ৫.৮০ মিটার পর্যন্ত অতিক্রম করেছিলেন তিনি। বুবকার বিশ্বরেকর্ড ৬.১৫ মিটারের ধারেকাছে না হলেও '৯০ দশকে বেশ সমীহ জাগানিয়া ছিল সেটা। গ্রেগের স্বপ্ন ছিল নিজে না পারলেও তাঁর তিন ছেলের যে কেউ যেন ছাড়িয়ে যায় বুবকাকে। ছোট থেকে ছেলেদের পোল ভল্টার হিসেবে গড়েও তুলছিলেন এ কারণে।

স্বপ্ন পূরণ হয়েছে গ্রেগের। তাঁর ২০ বছর বয়সী ছেলে আরমান্ড ডুপলান্টিস গত সপ্তাহে শুধু বুবকাকেই ছাড়িয়ে যাননি, গড়েছেন পোল ভল্টের নতুন বিশ্বরেকর্ডও। তাও এক সপ্তাহে দুবার! বুবকার ২১ বছরের রেকর্ডটা ২০১৪ সালে ভেঙেছিলেন রেনাঁদ লাভিলেনি। লাফিয়েছিলেন ৬.১৬ মিটার। গত সপ্তাহে পোল্যান্ডে 'মোন্ডো' নামে পরিচিত আরমান্ড লাফিয়েছেন ৬.১৭ মিটার। সপ্তাহ না ঘুরতে গতকাল গ্লাসগো গ্রাঁ প্রিঁ ইনডোরে নতুন বিশ্বরেকর্ড ২০ বছরের আরমান্ডের। এবার লাফিয়েছেন ৬.১৮ মিটার। বিশ্বরেকর্ডের জন্য পেয়েছেন ৩০ হাজার ডলারের চেক।

এ বছর অলিম্পিকের আসর বসছে টোকিওতে। সেখানে সোনা জিতে অ্যাথলেটিকস বিশ্বে নিজের আগমনী বার্তা জানাতে চান আরমান্ড, 'এত অল্প বয়সে রেকর্ডটা হয়ে যাবে ভাবিনি। বাবাকে ধন্যবাদ আমাকে স্বপ্ন দেখানোর জন্য। এই রেকর্ড ছাড়িয়ে যাওয়া লক্ষ্য আমার। সবার স্বপ্ন থাকে বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ আর অলিম্পিকে সোনা জেতা, আমিও চাইব বড় দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন হতে।' আরমান্ডের জন্ম ও বেড়ে ওঠা যুক্তরাষ্ট্রে। তবে অলিম্পিকে অংশ নেবেন সুইডেনের হয়ে। কারণ তাঁর মা হেলেনা সুইডিশ। স্বামী গ্রেগের সঙ্গে হেলেনা তিন ছেলে ও এক মেয়েকে গড়ে তুলেছেন পোল ভল্টার হিসেবে।

উসাইন বোল্টের অবসরের পর অ্যাথলেটিকস মাতানো তারকা নেই তেমন। ব্যাটনটা বোল্টের হাত ঘুরে কি আসবে আরমান্ডের হাতে? বিশ্ব মিডিয়ায় এ নিয়ে চর্চা হওয়ায় লজ্জায় পড়ে গেলেন আরমান্ড, 'আমি আপাতত স্যাম কেনড্রিকসকে হারানোর কথা ভাবছি। দোহা বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে আমাকে পেছনে ফেলে সোনা জিতেছিল ও। বোল্ট অ্যাথলেটিকসে কিংবদন্তি। তাঁর মতো সাফল্য পাওয়া সহজ নয়। তবে আমি পরিশ্রম করে যাব।'

আরমান্ডের বাবার সেরা ৫.৮০ মিটার ২০১৭ সালেই পেরিয়েছেন তিনি। তাঁর ২৩ বছরের ভাই আন্তোনিওর সেরা ৪.৩০ মিটার (এখন খেলেন বেসবল) আর ২৬ বছরের বড় ভাই আন্দ্রেসের সেরা ৫.৪২ মিটার। ১৭ বছরের ছোট বোন জোহানা লাফিয়েছেন সর্বোচ্চ ৩.৫৮ মিটার। ভাই-বোনদের ছাপিয়ে যাওয়ার পর আরমান্ড বিশ্বরেকর্ড গড়লেন দুবার। বয়স মাত্র ২০, কোথায় থামবেন আরমান্ড? দ্য টেলিগ্রাফ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা