kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৬ সফর ১৪৪২

'সব ক্রিকেটারের হিন্দি জানতে হবে' বলে বিপাকে ধারাভাষ্যকার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৬:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'সব ক্রিকেটারের হিন্দি জানতে হবে' বলে বিপাকে ধারাভাষ্যকার

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সারাবিশ্বের ক্রিকেটাররা সাধারণত ইংরেজিতে কথা বলে থাকেন। কেউ ইংরেজি না জানলে দোভাষীর সাহায্য নিতে হয়। কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে এর বাধ্যবাধকতা নেই। এবার 'সবাইকে হিন্দি জানতে হবে' বলে বিতর্কের মুখে পড়েছেন এক ভারতীয় ধারাভাষ্যকার! শত কোটি মানুষের দেশ ভারতে হরেক রকমের ভাষা আছে। ক্রিকেটাররাও বিভিন্ন জায়গা থেকেই উঠে এসেছেন। তাই হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ায় ধারাভাষ্যকার সুশীল দোশির ওপর চটেছেন ভারতের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

গত বৃহস্পতিবার কর্ণাটক আর বরদার মধ্যকার রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে ধারাভাষ্য দিচ্ছিলেন দুই ধারাভাষ্যকার। এমন সময় মাইক্রোফোন হাতে এক ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কারের হিন্দি ধারাভাষ্যের প্রশংসা করে বলেন, 'আজকাল সুনীল গাভাস্কার হিন্দিতে ধারাভাষ্য দিচ্ছেন দেখে আমার বেশ ভালোই লাগে। হিন্দিতে কথা বলার কারণে তিনি দারুণ সব মতামত দিতে পারেন। এমনকি যখন তিনি ডট বলকে বিন্দী বল বলেন তখনও আমার বেশ ভালো লাগে।'

সতীর্থ ধারাভাষ্যকার এমন কথা বলার পর সুশীল দোশি নামের এক ধারাভাষ্যকার বলে বসেন, 'সব ভারতীয়কে হিন্দি জানতে হবে। এটা আমাদের মাতৃভাষা। এরচেয়ে আর কোনো বড় ভাষা নেই। আমার খুব রাগ লাগে যখন দেখি কোনো ক্রিকেটার বলে, আমরা তো ক্রিকেটার। আমাদেরও হিন্দি বলা লাগবে? আপনি যখন ভারতে থাকবেন তখন আপনাকে অবশ্যই হিন্দি বলা লাগবে।'

বেচারা সুশীল দোশি উগ্র জাতীয়তাবাদ দেখাতে গিয়ে বিপদে পড়েন। তার এই কথা মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে ভারতের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বেশিরভাগ ক্রিকেটপ্রেমীরাই এর প্রতিবাদ করেছেন। সুশীলকে বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে। তারা দাবি তুলেছেন, ক্ষমা না চাইলে সুশীলকে যেন বহিস্কার করা হয়। এক সমর্থক টুইটারে লিখেছেন, 'ধারাভাষ্যকাররা নাকি জোর করে হিন্দি চাপিয়ে দিতে চাইছেন? সবাইকে নাকি হিন্দি শিখতে হবে। যদি বিষয়টা সত্যি হয় তাহলে অবিলম্বে বিসিসিআই তাকে বহিষ্কার করুক।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা