kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৯ চৈত্র ১৪২৬। ২ এপ্রিল ২০২০। ৭ শাবান ১৪৪১

গাড়িতে ধাক্কা দেওয়ার শাস্তি যখন 'সেলফি'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৫:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাড়িতে ধাক্কা দেওয়ার শাস্তি যখন 'সেলফি'

স্মার্টফোনের কল্যাণে 'সেলফি' নামক বিষয়টা এখন অনেকের ক্ষেত্রেই মানসিক রোগে পরিণত হচ্ছে। কিন্তু এই সেলফিই বাঁচিয়ে দিল রিয়াল মাদ্রিদের কোচ জিনেদিন জিদানকে। রাস্তায় সাধারণভাবে কোনও গাড়িকে ধাক্কা মারলে কি হয়? যে গাড়িকে ধাক্কা মারবেন তার চালক গাড়ি থেকে নেমে এসে রাস্তায় তর্ক জুড়ে দেবে। লোকজন জড়ো হয়ে যাবে। শেষ পর্যন্ত ট্রাফিক পুলিশের মধ্যস্থতায় মিটমাট। কিন্তু মাদ্রিদের রাস্তায় অন্যের গাড়িতে অসাবধানতাবশতঃ ধাক্কা মারলেও এমন কোনো ঘটনার শিকার হয়নি জিদান। বরং ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির চালক তো তাকে দেখে মহাখুশি!

সকালে রিয়াল মাদ্রিদের অনুশীলনে যাচ্ছিলেন জিদান। একটু তাড়া ছিল। তাতেই হয়তো অবচেতন মনে গাড়িতে ধাক্কা মেরে বসেন সাবেক ফরাসি সুপারস্টার। এরপরেই দ্রুত গাড়ি থেকে নেমে আসেন তিনি। অন্য গাড়ির চালকও নেমে আসেন। আর সামনে জিদানকে দেখে তো আক্কেল গুড়ুম ইগনাসিও ফার্নান্ডেজ নামের ওই গাড়ির মালিকের। ইগনাসিও বলেন, 'ওনাকে দেখেই আমি দেখে চিনতে পেরেছিলাম। আমাদের হয়তো অন্যভাবেও দেখা হতে পারত। কিন্তু এটাও মন্দ নয়।'

এরপর রিয়াল মাদ্রিদের ট্রেনিং গ্রাউন্ডের কাছাকাছি এমন ঘটনা ঘটায় সংবাদকর্মীরা এসে যাতে বিষয়টি নিয়ে বেশি জলঘোলা না হয় তাই বিষয়টি আর বেশিদূর গড়ায়নি। তবে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে জিদানকে। ইগনাসিও নিজেই জিদানকে ক্ষতিপূরণের কাগজপত্র পরে পাঠিয়ে দেবেন। তবে জিদানকে ছাড়ার আগে একটা সেলফির আবদার করেন ইগনাসিও। সেই আবদার অবশ্য রেখেছেন জিনেদিন জিদান। শেষ ইগনাসিও বলেন, এই সেলফিটা না রাখলে তিনি তো কাউকে বিশ্বাসই করাতে পারতেন না যে জিদান তার গাড়িতে ধাক্কা মেরেছিলেন!

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা