kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

'পুরুষরাই টাকা আনে; তাই ওরাই বেশি বেতন পাবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ১৬:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'পুরুষরাই টাকা আনে; তাই ওরাই বেশি বেতন পাবে'

ভারতীয় উপমহাদেশে পুরুষ এবং নারী ক্রিকেটারদের বেতন বৈষম্যের কথা সবার জানা। এই বৈষম্য বাংলাদেশে যেমন খুব নগ্নভাবে চোখে পড়ে, তেমনি ক্রিকেটর সবচেয়ে বড় বাণিজ্যের দেশ ভারতেও প্রকট আকার ধারণ করেছে এই বেতন বৈষম্য। লিঙ্গবৈষম্যের দেয়াল ভেঙে সমপরিমাণ বেতনের দাবিতে মুখর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নারী ক্রীড়াবিদেরা। সেই প্রেক্ষিতে সম্পূর্ণ ভিন্ন সুরে কথা ভললেন আইসিসির বর্ষসেরা ক্রিকেটার ভারতের স্মৃতি মান্ধানা।

ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলের ওপেনার বলেছেন, ছেলেদের ক্রিকেট থেকেই আর্থিক মুনাফা হয়ে থাকে। ফলে এখনই তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নারী ক্রিকেটারদের বেতনে সাম্য আনার ভাবনা যুক্তিযুক্ত নয়। তার ভাষায়, 'বাস্তবতা হলো পুরুষ ক্রিকেটাররাই রুপি আনে। যেদিন নারীদের ক্রিকেট থেকে সেই পরিমাণ আর্থিক মুনাফা হবে, সে দিন আমিই প্রথম বেতনে সমতা আনার দাবি জানাব। তবে এই মুহূর্তে সেই বিষয়ে কথা বলার জায়গা নেই।'

এই মুহূর্তে বিসিসিআইয়ের সঙ্গে চুক্তির যে কাঠামো রয়েছে, সেখানে একজন পুরুষ ক্রিকেটারের সর্বাধিক বার্ষিক বেতনের পরিমাণ ৭ কোটি রুপি। অন্য দিকে এক জন নারী ক্রিকেটারের সর্বাধিক বার্ষিক বেতনের পরিমাণ ৫০ লক্ষ রুপি। তা নিয়ে মন্ধানা বিন্দুমাত্র চিন্তিত নন। তিনি ব্যক্তিগতভাবে এই বেতন বৃদ্ধি নিয়ে কিংবা পুরুষদের সমান বেতন প্রাপ্তি নিয়ে খুব মাথা ঘামানা না বলে জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, 'আমি মনে করি না, নারী ক্রিকেট দলের কোনো সদস্য বেতনের এই বিশাল পার্থক্য নিয়ে খুব একটা চিন্তা করে। আমাদের একটাই লক্ষ্য, ভারতের জার্সিতে যত বেশি সংখ্যক ম্যাচ জয়। ম্যাচ জিতলেই মাঠে বেশি দর্শক আসবে এবং তাতেই মুনাফার মাত্রা বাড়বে। নারীদের ক্রিকেট নিয়ে যাতে উন্মাদনা তৈরি হয়, তার জন্য প্রয়োজন শক্ত একটা মঞ্চের। তাই এটা ভাবা অন্যায় হবে যে, আমরা বেতনে সাম্য আনার বিষয় নিয়ে বেশি চিন্তুিত।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা