kalerkantho

শনিবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৪ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

বিয়ের আগে হার্দিকের যত প্রেমিকা ছিল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০২০ ১৭:৪৮ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বিয়ের আগে হার্দিকের যত প্রেমিকা ছিল

কিছুদিন আগেই সার্বিয়ান মডেল-অভিনেত্রী নাতাসা স্ট্যানকোভিচের সঙ্গে এনগেজমেন্ট হয়ে গেছে ভারতের তারকা পেস বোলিং অল-রাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়ার। তবে বাগদত্তা নাতাসাই প্রথম নন, এর আগেও একাধিক বার হার্দিকের নাম জড়িয়েছে বলিউডের সুন্দরীদের সঙ্গে। কিন্তু ভারতীয় অল-রাউন্ডারের সঙ্গে অভিনেত্রীদের সব সম্পর্কই ছিল ক্ষণস্থায়ী। বিগত সে সব সম্পর্কের টানাপড়েন পেরিয়ে হার্দিক এবার পাকাপাকিভাবে জীবনসঙ্গী খুঁজে নিয়েছেন।

মডেল লিসা শর্মার সঙ্গে হার্দিকের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন রটেছিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় দুজনের ছবিও শেয়ার করতেন তারা। কিন্তু বেশিদিন স্থায়ী হয়নি না সেই গুঞ্জন। সোশ্যাল মিডিয়াতেই সম্পর্ক শেষ হওয়ার কথা জানান হার্দিক। ইনস্টাগ্রামে হার্দিক লিখেন, তিনি সিঙ্গেল। তার একমাত্র লক্ষ্য, ক্রিকেটে মনোনিবেশ করা। তিনি খুশি হবেন, যদি সব রটনা বন্ধ হয়ে যায়। গুজব বন্ধ হওয়া সবার জন্যই শ্রেয়।

এরপর বলিউড স্টার পরিণীতি চোপড়ার সঙ্গে হার্দিকের সম্ভাব্য সম্পর্ক নিয়েও এক সময়ে জোরদার হয়েছিল গুঞ্জন। সেই রটনার সূত্রপাত অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়া। একটি বাইসাইকেলের ছবি পোস্ট করে পরিণীতি ক্যাপশন দিয়েছিলেন, 'মনের মতো সঙ্গীর সঙ্গে একটি আদর্শ ট্রিপ। চারদিকে প্রেমের মৌসুম।'

পরিণীতির পোস্টের উত্তরে হার্দিক লেখেন, 'আমি কি অনুমান করতে পারি? আমার মনে হয় এটা আরও একটি বলিউড-ক্রিকেট সম্পর্ক।' এর পর ছবিটিরও প্রশংসা করেন হার্দিক। এর পরই হার্দিক-পরিণীতি ঘনিষ্ঠতা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়। যদিও পরে দুজনেই জানান তাদের মধ্যে কোনো বিশেষ সম্পর্ক নেই।

এরপর এলি আব্রামের সঙ্গে বিভিন্ন ইভেন্ট এবং বিজ্ঞাপনী শুটিংয়ে হার্দিককে দেখা যেত। ফলে হার্দিকের 'সিঙ্গেল' ভাবমূর্তিতে নতুন আঘাত আসতে সময় লাগেনি। কিন্তু প্রথম থেকেই তারা অস্বীকার করেছিলেন তাদের মধ্যে কোনো বিশেষ সম্পর্ক আছে বলে। তারপরেও ফিল্মি গসিপ বন্ধ হয়নি। কারণ হার্দিকের দাদা ক্রুণাল পাণ্ডিয়ার বিয়েতে আমন্ত্রিত ছিলেন এলি। এই সম্পর্কও কয়েক মাসের বেশি স্থায়ী হয়নি। এরপর হার্দিকের নাম জড়িয়ে যায় আর এক অভিনেত্রী এষা গুপ্তের সঙ্গে। একটি পার্টিতে দুজনের প্রথম আলাপ হয়েছিল। কিন্তু হার্দিক এবং এষা দুজনেই এই সম্পর্ক অস্বীকার করেছিলেন।

মডেল এবং অভিনেত্রী শিবানী দাণ্ডেকরের সঙ্গে হার্দিক ডেটিং করছিলেন বলে শোনা যেত। সোশ্যাল মিডিয়ায় হার্দিকের পোস্টের উত্তরে শিবানীর একটি কমেন্টই ছিল যাবতীয় রটনার সূত্রপাত। কিন্তু পরে জানা যায়, হার্দিক-শিবানী সম্পর্ক নাকি শুধুই বন্ধুত্বের। শিবানী এখন ফারহান আখতারের বিশেষ বান্ধবী। তাদের বিয়ের অপেক্ষা করছে সবাই।

জনপ্রিয় বলিউড অভিনেত্রী উর্বশী রাউতেলার সঙ্গে হার্দিকের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন সবথেকে বেশি জোরালো হয়েছিল। ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছিল তাদের ছবি। এমনকি ইউটিউবে একটি ভিডিওও আপলোড হয়েছিল। কিন্তু পরে গোটা বিষয়টিতে নিজের 'ক্ষোভ' প্রকাশ করেন অভিনেত্রী। ইউটিউবে যে ভিডিওটি আপলোড হয়েছিল, সেখানে লেখা ছিল, সাবেক বয়ফ্রেন্ডের কাছ থেকে সাহায্য চাইলেন উর্বশী রাউতেলা। সে প্রসঙ্গে উর্বশী বলেছিলেন, তার সঙ্গে হার্দিক পাণ্ডিয়ার কোনোকালেও সম্পর্ক ছিল না। আর এই ধরনের খবরের ফলে পারিবারিক জীবনে তাকে সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে। কারণ তাকে পরিবারের কাছে জবাবদিহি করতে হয়।

ইউটিউবের ওই ভিডিওর স্ক্রিন শট দিয়ে উর্বশী লেখেন, 'আমি বিনয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইউটিউব চ্যানেলকে অনুরোধ করছি, এই ধরনের হাস্যকর ভিডিও আপলোড করা বন্ধ হোক। আমার একটা পরিবার আছে যেখানে আমাকে এই সব কথার জবাব দিতে হয় এবং এই ধরনের ভিডিও পরিবারে সমস্যার সৃষ্টি করে।'

এত সবকিছুর পরেও 'হার্দিকের সাবেক প্রেমিকা' তকমা রয়েই গিয়েছে উর্বশীর নামের পাশে। নাতাশার সঙ্গে এনগেজমেন্টের খবর হার্দিক ঘোষণা করার পর সবাই উর্বশীর প্রতিক্রিয়ার অপেক্ষায় ছিল। কৌতূহলীদের অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষায় রাখেননি উর্বশী। হার্দিক ও নাতাশার অন্তরঙ্গ ছবি ও এনগেজমেন্টের খবরের সেই পোস্টের নীচে উর্বশী লিখেন, 'তোমাদের দুজনের সম্পর্ক আজীবন এমন আনন্দ ও ভালবাসায় ভরে থাকুক। সুন্দর জীবন ও অশেষ প্রেমের শুভেচ্ছা রইল দুজনকেই।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা