kalerkantho

বুধবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ১ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

জাতীয় দলে জায়গা পাকা করতে চান শান্ত-মেহেদি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ১৯:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জাতীয় দলে জায়গা পাকা করতে চান শান্ত-মেহেদি

আসন্ন পাকিস্তান সফরে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের ১৫ সদস্যের দলে আছেন ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত ও স্পিন অল-রাউন্ডার মেহেদি হাসান। গতরাতে শেষ হওয়া বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) দুর্দান্ত পারফরমেন্সের সুবাদে এক সিরিজ পর শান্ত ও দীর্ঘদিন পর জাতীয় দলে ফিরলেন মেহেদি। বিপিএলের শুরুর দিকে ধারাবাহিক ছিলেন না শান্ত। তবে শেষ দিকে এসে জ্বলে ওঠে তার ব্যাট। একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে সেঞ্চুরিও করেছেন তিনি।

২০১৮ সালে টি-টোয়েন্টি দিয়ে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয় মেহেদির। এবারের বিপিএলে ব্যাট-বল হাতে দুর্দান্ত পারফরমেন্সে নির্বাচকদের নজর কাড়েন তিনি। স্পিনার হিসেবে দলে তার পরিচিতি। কিন্তু পিঞ্চ হিটার হিসেবেও তিনটি হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। ঢাকা প্লাটুনের হয়ে ২৫৩ রান ও ১২ উইকেট শিকার করেছেন এই ডান-হাতি। শান্ত-মেহেদি দুজনেরই টি-টোয়েন্টি অভিষেক হয়েছে। কিন্তু জাতীয় দলে নিজেদের জায়গাটা পাকাপোক্ত করতে পারেননি কেউই। দলের সিনিয়ররা পাকিস্তান সফরের দলে না থাকায় আবারো সুযোগ এসেছে।

মেহেদির দলে সুযোগ পাওয়াট নিশ্চিতই ছিল। কিন্তু অনেকটা ভাগ্যের জোরেই দলে ডাক পেলেন শান্ত। অভিজ্ঞ ইমরুল কায়েসের হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। শান্ত বলেন বলেন, 'জাতীয় দলে ফিরে আসায় খুবই ভালো লাগছে। অবশেষে দলে সুযোগ পাওয়ায় আমি খুশী। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ হলো, পারফর্ম করা। বিপিএলের শেষদিকে রান পাওয়ায় আমি এখন আত্মবিশ্বাসী। আশা করছি, পাকিস্তানে খেলার সুযোগ পেলে ফর্ম অব্যাহত রাখতে পারব।'

বিপিএলের পিঞ্চ হিটার হিসেবে ব্যাট হাতে চমক দেখিয়েছেন মেহেদি। কিন্তু পাকিস্তান সফরে উপরের দিকে ব্যাটিং করার সুযোগ না পেলে কোন সমস্যা নেই বলে জানান তিনি, 'আমি সব সময় স্বাভাবিক খেলার চেষ্টা করি। নির্বাচকরা আমাকে জাতীয় দলের জন্য যোগ্য মনে করেছেন, এজন্যই আমাকে দলে সুযোগ দিয়েছেন। টিম ম্যানেজমেন্ট আমার কাছে যা চায়, আমি তাই করতে চাই। তারা আমাকে যেভাবে খেলাতে চায়, আমি সেভাবেই খেলব। সর্বোপরি আমি আমার সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা