kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

পিংক বল টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার টানা সপ্তম জয়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২০:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পিংক বল টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার টানা সপ্তম জয়

ছবি : এএফপি

পার্থে দিবা-রাত্রির টেস্টে সফরকারী নিউজিল্যান্ডকে ২৯৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। ছেলেদের ক্রিকেটে এ পর্যন্ত ১৪টি দিবারাত্রির টেস্ট হয়েছে। সাতটি ম্যাচেই এর একটি দল ছিল অস্ট্রেলিয়া। নিজেদের মাঠে খেলা সবগুলো ম্যাচেই তারা জয় পেয়েছে। আজকের এই জয়ে স্বাগতিকরা সিরিজে এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে। রানের ব্যবধানে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বড় জয় অস্ট্রেলিয়ার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অজিদের সবচেয়ে বড় জয় ২৯৭ রানে।

সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার ৪১৬ রানের জবাবে ১৬৬ রানে অল-আউট হয় নিউজিল্যান্ড। ফলে প্রথম ইনিংস থেকে ২৫০ রানের লিড পায় অস্ট্রেলিয়া। এই লিডকে সাথে নিয়ে তৃতীয় দিন শেষে ৬ উইকেটে ১৬৭ রান করেছিলো অজিরা। চতুর্থ দিন প্রথম সেশনে মধ্যাহ্ন-বিরতির আগে ৯ উইকেটে ২১৭ রানে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিকরা। নিউজিল্যান্ডের সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ৪৬৮ রানের। দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে জো বার্নস ৫৩ ও মার্নাস লাবুশেন ৫০ রান করেন। নিউজিল্যান্ডের টিম সাউদি ৬৯ রানে ৫ উইকেট নেন।

৪৬৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে অজি বোলারদের তোপের মুখে পড়ে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। ৯৮ রানের মধ্যে ৫ ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরেন। জিত রাভাল ১, টম লাথাম ১৮, কেন উইলিয়ামসন ১৪, রস টেইলর ২২ ও হেনরি নিকোলস ২১ রান করেছেন।স্পিনার নাথান লিঁও ৩টি ও স্টার্ক ২টি নেন।  উপরের সারির ব্যাটসম্যানদের বিদায়ের পর লড়াই করার চেষ্টা করেন উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিং-কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। পঞ্চাশ ছাড়িয়ে যায় দুজনের জুটি। গ্র্যান্ডহোমকে (৩৩) ফিরিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে দুর্দান্ত এক ব্রেক-থ্রু এনে দেন পেসার প্যাট কামিন্স। এ

গ্র্যান্ডহোমের বিদায়ের ৮ বল পর প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন উইকেটে সেট হওয়া ওয়াটলিং। ৪০ রান করা ওয়াটলিংকে থামান স্টার্ক। ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়াটলিংয়ের আউটের পর নিউজিল্যান্ডের লোয়ার-অর্ডারের কেউই দুই অংকের কোটা স্পর্শ করতে পারেননি। দলীয় ব্যর্থতায় ১৭১ রানেই অল-আউট হয় নিউজিল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার স্টার্ক-লিঁও ৪টি করে ও কামিন্স ২টি উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মিচেল স্টার্ক। আগামী ২৬ ডিসেম্বর মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে  মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা