kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জানুয়ারি ২০২০। ১৬ মাঘ ১৪২৬। ৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

ইতিহাস গড়ে শেষ হলো পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার ঐতিহাসিক টেস্ট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইতিহাস গড়ে শেষ হলো পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার ঐতিহাসিক টেস্ট

অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি উদযাপন করছেন আবিদ আলী। ছবি : এএফপি

টানা পাঁচদিন ধরে সেঞ্চুরির জন্য লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। কিন্তু বৃষ্টি তাকে মাঠেই নামতে দিচ্ছিল না। যে কারণে পরের তিন দিনেও শেষ হয়নি শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। অবশেষে পাকিস্তানে টেস্ট ফেরানোর এই ম্যাচের পঞ্চম দিনে আজ প্রকৃতিদেবী সদয় হলেন। শেষ দিনে দেখা গেল সূর্যের হাসি, ধনাঞ্জয়া তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। এরপর ব্যাট হাতে নেমে দ্রুত সেঞ্চুরিতে ইতিহাস গড়ে ফেললেন পাকিস্তানের অভিষিক্ত ক্রিকেটার আবিদ আলী। পাশাপাশি বাবর আজমও তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি। 

পাঁচদিনে সেঞ্চুরি করেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। ছবি : টুইটার

১০ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে অনুষ্ঠিত এই টেস্টের প্রথম দিনে খেলা হয়েছিল ৬৮ ওভার। পরের দুই দিন মিলিয়ে হয় ২৩.৪ ওভার। চতুর্থ দিনে খেলাই হয়নি। পঞ্চম দিনে সকাল থেকে ছিল রোদ। শ্রীলঙ্কা দিন শুরু করেছিল ৬ উইকেটে ২৮২ রানে। ধনাঞ্জয়ার সেঞ্চুরির পরপরই ৬ উইকেটে ৩০৮ রানে ইনিংস ঘোষণা করে লঙ্কানরা। টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরিতে ১৬৬ বলে ১০২ রানে অপরাজিত থাকেন ধনাঞ্জয়া। আগেই সবাই বুঝে গিয়েছিল এই ম্যাচ ড্র হতে চলছে। তবে দিনের শেষে দর্শকদের মাতিয়ে দিলেন আবিদ আলী। 

বাবর আজমও সেঞ্চুরি করেছেন ওয়ানডে স্টাইলে। ছবি : এএফপি

এত বছর পর টেস্ট খেলা দেখতে স্টেডিয়ামে প্রতিদিনই ভিড় করেছেন পাকিস্তানি দর্শকরা। আবিদের সেঞ্চুরি যেন তাদের জন্য উপহার। ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে করলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দুই সংস্করণের অভিষেকেই সেঞ্চুরি হাঁকানোর ইতিহাস গড়েছেন আবিদ। গত মার্চে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে অভিষেকেও সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। এবার টেস্ট অভিষেকে ১৮৩ বলে স্পর্শ করেন তিন অঙ্ক। অন্যদিকে ওয়ানডে স্টাইলে খেলে ১১৮ বলে সেঞ্চুরি তুলে নেন 'পাকিস্তানের কোহলি' খ্যাত বাবর আজম। পাকিস্তান ২ উইকেটে ২৫২ রান তোলার পর দুই দলই ড্র মেনে নেয়। আবিদ ১০৯* এবং বাবর ১০২* রানে অপরাজিত থাকেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা