kalerkantho

রবিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০২০। ৫ মাঘ ১৪২৬। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

দুর্দান্ত লিটন দাস; রাজশাহীর সহজ জয়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৬:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্দান্ত লিটন দাস; রাজশাহীর সহজ জয়

বিপিএলে সেই পুরনো বাজে ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী চলছেই। আজ সিলেট থান্ডার একশ রানও করতে পারেনি। তাদের দেওয়া ৯২ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১০.৫ ওভারে হেসেখেলে ৮ উইকেটের বড় জয় তুলে নিয়েছে রাজশাহী রয়্যালস। গত ম্যাচের মতো আজও দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন রাজশাহীর ওপেনার লিটন দাস। অপরাজিত ৪৪* রানের ইনিংস খেলেছে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।

মামুলি টার্গেট তাড়ায় নেমে প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই বড় ধাক্কা খায় রাজশাহী। নাঈম ইসলামের বলে 'ডাক' মারেন হজরতুল্লাহ জাজাই। দলকে এগিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব নে লিটন দাস আর আফিফ হোসেন। দুজনে গড়েন ৬২ রানের জুটি। নাভিন উল হকের বলে আফিফ হোসেন (৩০) আউট হলে ভাঙে এই জুটি। লিটন দাসের সঙ্গী হন শোয়েব মালিক। দুজনের ব্যাটে মাত্র ১০.৫ ওভারেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যান রাজশাহী। ২৬ বলে ৭ বাউন্ডারিত ৪৪* রানে অপরাজিত থাকেন লিটন। শোয়েব করেন অপরাজিত ১১* রান।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৫.৩ ওভারে মাত্র ৯১ রানে অল-আউট হয়ে যায় সিলেট থান্ডার। যদিও ৩৫ রানের উদ্বোধনী জুটি সিলেটের ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছিল। কিন্তু ওই পর্যন্তই। রাজশাহী অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেলের বলে রনি তালুকদার (১৯) আউট হওয়ার পর যেন প্যাভিলিয়নে ফেরার মিছিলে নামেন সবাই। অলক কাপালি বোল্ড করে দেন অপর ওপেনার জনসন চার্লস (১৬) এবং জীবন মেন্ডিসকে (০)। এই স্পিনারের তৃতীয় শিকার নাজমুল ইসলাম (০)।

এভাবেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে সিলেট। এক পর্যায়ে তা বাড়াবাড়ির পর্যায়ে চলে যায়। ১০ রানের মধ্যে সিলেটের শেষ ৫ ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরেন! উইকেটকিপার মোহাম্মদ মিঠুন এবং অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত যুগ্মভাবে সর্বোচ্চ ২০ রান করে করেছেন। সিলেটের শেষ ৫ ব্যাটসম্যানের রান যথাক্রমে ১, ২, ০, ০, ১। ১৫.৩ ওভারে মাত্র ৯১ রানে শেষ হয় সিলেটের ইনিংস। বল হাতে ৩ উইকেট নেন অলক কাপালি। ২টি করে উইকেট নেন রবি বোপারা এবং ফরহাদ রেজা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা