kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

মেয়েদের সোনা জয়ের দিনে ছেলেদের করুণ পরাজয়!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৭:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেয়েদের সোনা জয়ের দিনে ছেলেদের করুণ পরাজয়!

এস এ গেমসের ফাইনালের আগে বড় ধাক্কা খেল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল। আজ নিয়মরক্ষার ম্যাচের বাংলাদেশ মুখোমুখি হয়েছিল শ্রীলঙ্কার। সৌম্য সরকার ও নাজমুল হোসেন শান্তকে ছাড়া বাংলাদেশ দলকে পাত্তাই দেয়নি লঙ্কানরা। দ্বীপরাষ্ট্রের ক্রিকেটাররা জিতেছে ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে। শান্ত না থাকায় এই ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দেন সাইফ হাসান। আগামীকাল সোমবার সোনা জয়ের মিশনে মাঠে নামবে দুই দল। অন্যদিকে আজ প্রথমবারের মতো এসএ গেমস ক্রিকেট থেকে বাংলাদেশকে সোনা এনে দিয়েছে নারী ক্রিকেটাররা।

কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫০ রান তোলে বাংলাদেশ।  দ্বিতীয় ওভারেই বিদায় নেন সাইফ হাসান। বাংলাদেশের ভোগান্তির শুরু সেখান থেকেই। এরপর মোহাম্মদ নাঈম শেখ ও আফিফ হোসেনও দ্রুত বিদায় নেন। ৫ম ওভারে বাংলাদেশের রান ছিল ৩ উইকেটে ২১! সেই বিপর্যয় থেকে দলকে এগিয়ে নেন মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ও ইয়াসির আলি চৌধুরি। চতুর্থ উইকেটে ৬৬ বলে ৮০ রানের জুটি গড়েন দুজন। অঙ্কন ৩৮ বলে ৪৪ এবং ইয়াসির ৪৫ বলে ৫১ রানের ইনিংস খেলেন। শেষে জাকিরের ১৭ বলে ২০ রানে স্কোর হয় দেড়শ।

স্কোর খুব একটা খারাপ না হলেও বল হাতেও ব্যর্থ হন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বাঁহাতি পেসার মেহেদি হাসান রানা ফিরিয়ে দেন নিশান মাদুশকাকে। ওই একটি সাফল্য নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় টাইগারদের। দ্বিতীয় উইকেটে ১৩৪ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে শ্রীলঙ্কাকে জিতিয়ে দেন পাথুম নিসানকা ও লাসিথ ক্রুপসপুল। বাংলাদেশের কোনো বোলারই আটকাতে পারেননি ২১ বছর বয়সী দুই লঙ্কানকে। ৫২ বলে ৬৭ রানে অপরাজিত থাকেন নিসানকা। ৪১ বলে ৭৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন ক্রুপসপুল। লঙ্কানরা জিতে যায় ২৩ বল হাতে রেখে। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতে নেন ক্রুপসপুল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা