kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

কোহলি যতই সেরা হোক; শচীনের ধারেকাছে নেই : রাজ্জাক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৫:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোহলি যতই সেরা হোক; শচীনের ধারেকাছে নেই : রাজ্জাক

ভারতীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে মিডিয়ার সামনে একের পর এক বোমা ফাটিয়েই চলছেন সাবেক পাকিস্তানি অল-রাউন্ডার আব্দুর রাজ্জাক। তিনি নাকি যশপ্রীত বুমরাকে খুব সহজেই উড়িয়ে দিতেন- এমন মন্তব্যের রেশ না কাটতেই এবার তার টার্গেট ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। আইসিসির টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাংকিংয়ে কোহলি এখন বিশ্বের এক নম্বর। তবে রাজ্জাক কোনোভাবেই কোহলিকে শচীন টেন্ডুলকারের সঙ্গে তুলনা করা উচিত নয়।

কোহলি সম্পর্কে রাজ্জাকের মূল্যায়ন, কোহলির মধ্যে ধারাবাহিকতা রয়েছে ঠিকই, তবে সে কোনোভাবেই নাকি শচীন টেন্ডুলকারের পর্যায়ের ক্রিকেটার নন। বিষয়টি ব্যাখ্যা দিয়ে সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার বলেছেন, 'বিরাট কোহলির কথাই ধরুন না। ও যখন রান করছে তখন করেই চলেছে। ভারতের সেরা প্লেয়ার, ধারাবাহিক ভাবে রানও করে চলেছে। কিন্তু, শচীনের সঙ্গে আমি ওকে এক বন্ধনীতে রাখব না। শচীনের ক্লাসই ছিল অন্যরকম।'

রাজ্জাক পাকিস্তানের হয়ে ৪৬টি টেস্ট ম্যাচ, ২৬৫টি ওয়ানডে ও ৩২টি টি টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। একটি ঘটনার কথা শোনা যায় তার মুখে। ২০০৩ বিশ্বকাপে শচীনকে বল করছিলেন পেস কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরাম। রাজ্জাককে দাঁড় করিয়েছিলেন মিড অফে।  ঠিক ওই জায়গাতেই ক্যাচ দেন 'মাস্টার ব্লাস্টার'। কিন্তু, রাজ্জাক তখন নিজের জায়গা ছেড়ে এগিয়ে এসেছিলেন। ফলে শচীনের ক্যাচ ধরতে পারেননি তিনি। তারপর আকরামের বক্তব্য ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায় জায়গা করে  নেয়।

ক্ষুব্ধ, হতাশ আকরাম চিৎকার করে রাজ্জাককে বলেছিলেন, 'তুই কার ক্যাচ ছাড়লি জানিস?' জীবন ফিরে পেয়ে শচীন পাকিস্তানের হাতের মুঠো থেকে ম্যাচ বের করে ফেলেন। সেই রাজ্জাক এখন বিশেষজ্ঞর মতো বলছেন, '১৯৯২ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত যে সব বিশ্বখ্যাত ক্রিকেটারদের আমরা দেখেছি, এখন আর তারা নেই। টি টোয়েন্টি ক্রিকেট সব পরিবর্তন করে দিয়েছে। বোলিং, ফিল্ডিং, ব্যাটিংয়ে গভীরতা নেই। এখন হয়তো অনেকেই রান করছে, রেকর্ড গড়ছে, কিন্তু ব্যাটিংয়ের সৌন্দর্য হারিয়ে গেছে।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা