kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

জয় দিয়ে এসএ গেমস মিশন শুরু বাংলাদেশের মেয়েদের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৪:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জয় দিয়ে এসএ গেমস মিশন শুরু বাংলাদেশের মেয়েদের

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দুর্দান্ত জয় দিয়ে দক্ষিণ এশিয়ান গেমস মিশন শুরু করল বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের। লঙ্কানদের ছুড়ে দেওয়া ১২৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারের ৯ বল এবং ৭ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করেন বাংলাদেশের মেয়েরা।

আজ মঙ্গলবার এসএ গেমসের আসরের তৃতীয় দিনে মুখোমুখি হয় দুই দল। এদিন পোখারা রঙ্গশালাতে টস জিতে শ্রীলঙ্কাকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ।

দেখেশুনে ব্যাটিং শুরু করেন শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার উমেশা থিমাশিনি ও জানাদি অনালি। তবে দলীয় ৩৪ রানে প্রথম উইকেট হারায় তারা। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে ফের সামারাউইক্রিমকে নিয়ে জুটি গড়েন উমেশা। তবে ৫৬ রানে উমেশা আউট হলেও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ লঙ্কানদের হাতেই থাকে। সেই হিসেবে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিল লঙ্কানরা। কিন্তু ১৭তম ওভারে নাহিদার বোলে সামারাউইক্রিম আউট হলে ম্যাচ হেলে যায় বাঘিনীদের পক্ষে। কারণ  ১১১ থেকে ১১৮ রানের মধ্যে ৪টি উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। ফলে শেষ পর্যন্ত ১২২ রানে থেমে যায়  শ্রীলঙ্কার ইনিংস।

লঙ্কানদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন উমেশা। তার ৪৯ বলের ইনিংসটাতে ছিল ৫টি চার ও ৪টি ছয়। এছাড়া সামারার ব্যাট থেকে আসে ২ চার ও ১ ছয়ে ৩০ বলে ৩৩ রান। 

এদিকে ১২৩ রানের সহজ টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দলীয় ১৩ রানের মাথায় আউট হন মুর্শিদা খাতুন। অবশ্য দ্বিতীয় উইকেটে ৫৩ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের পথে রাখেন আয়েশা রহমান ও সানজিদা ইসলাম। তবে দলীয় ৬৬ রানের মাথায় আয়েশা আউট হলে 
জুটি ভেঙে যায়। আউট হওয়ার আগে ৩৫ বলে ২৯ রান করেন আয়েশা।

আয়েশার বিদায়ের ক্রিজে আসা নিগার সুলতানাও ৬ রান করে বিদায় নেন। তবে ফারজানা হককে সাথে নিয়ে ৯ বল এবং ৭ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করেন সানজিদা।

৪৫ বলে ৫১ রানে অপরাজিত থাকেন সানজিদা। আর ফারজানা অপরাজিত থাকেন ১৮ বলে ২৩ রান করে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
শ্রীলঙ্কা ১২২/৬ ( ২০ ওভার)
উমেশা ৫৬, সামারা ৩৩, সন্দীপনী ১২;
নাহিদা ৪/৩২, জাহানার ১/২৩।

বাংলাদেশ ১২৬/৩ ( ১৮.৩ ওভার)
সানজিদা ৫১*, আয়েশা ২৯, ফারজানা ২৩*, নিগার ৬, মুর্শিদা ৮
উমেশা ১/১৩।
 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা