kalerkantho

শনিবার । ২৩ নভেম্বর ২০১৯। ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

৮ উইকেটের জয়ে সিরিজে টিকে থাকল ভারত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:০৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৮ উইকেটের জয়ে সিরিজে টিকে থাকল ভারত

হারলেই হাতছাড়া হবে ট্রফি। এমন এক সমীকরণের ম্যাচে ১৫৪ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে রোহিত শর্মা-ধাওয়ানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জয় তুলে নিয়েছে ভারত। মাত্র ১৫ ওভার ৪ বল ব্যাটিং করে দুই উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষে পৌঁছে যায় রোহিত শর্মার দল। ৮ উইকেটের জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ এখন ১-১ সমতা। আগামী ১০ নভেম্বর নাগপুরে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি দুই দলের জন্য সিরিজ জেতার লড়াই হয়ে থাকল।

আজ বৃহস্পতিবার রাজকোটে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় ভারতের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। এ ম্যাচে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়েই মাঠে নেমেছে দু’দল।

দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। যেখানে শুরুটা ভালো করলেও পরবর্তীতে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান করে বাংলাদেশ।

১৫৪ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই টাইগার বোলারদের উপর চড়াও হন রোহিত শর্মা। মোস্তাফিজুর রহমানের প্রথম ওভার থেকে শিখর ধাওয়ান নেন ৯ রান। এরপর থেকেই যেন ব্যাট হাতে জ্বলে উঠলেন ভারতীয় অধিনায়ক। পরের দুই ওভারে আল-আমিনের ওভার থেকে আসে ১১ এবং শফিউল ইসলামের ওভার থেকে আসে ১৫। এতেই প্রথম পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই স্কোরবোর্ডে অর্ধশতক রান তোলে স্বাগতিকরা।

ইনিংসের ৮ম ওভারেই নিজের ১০০তম টি-টোয়েন্টি খেলতে নামা রোহিত শর্মা তুলে নেন ১৮তম অর্ধশতক।  ২৩ বলে ৬টি চার এবং ৩টি ছয়ে অর্ধশক তুলে নেন ভারতীয় অধিনায়ক।

১১তম ওভারে বল করতে আসেন টাইগার লেগি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। ওভারের ৫ম বলে উইকেট ছেড়ে বেরিয়ে এসে শট খেলতে যান শিখর ধাওয়ান। আর এতেই মিস হয়ে যায় ব্যাট-বল; সোজা গিয়ে আঘাত হানে স্ট্যাম্পে। আর এতেই ১১৮ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে ভারতের। আউট হওয়ার আগে ২৭ বলে ৩১ রানের ইনিংস খেলেন শিখর ধাওয়ান।

ইনিংসের ১৩তম ওভারে আবারও বিপ্লবের হাতে বল তুলে নেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ। এবার বল হাতে নিয়ে ওভারের প্রথম বলেই তুলে নেন ভয়ংকর রোহিতের উইকেট। মিড অন দিয়ে সজোরে ওভার বাউন্ডারির উদ্দেশ্যে ব্যাট হাঁকিয়েছিলেন ভারতের অধিনায়ক। তবে বাউন্ডারির ঠিক সামনে দাঁড়িয়ে থাকা মোহাম্মদ মিঠুনের হাতে গিয়ে পড়ে বল। এতেই ৮৫ রানের দারুণ এক ইনিংসের সমাপ্তি ঘটে রোহিত শর্মার। ঝড়ো এই ইনিংসে ৪৩টি বল খেলেছেন রোহিত আর ইনিংস জুড়ে মেরেছেন ছয়টি করে চার এবং ছয়। শেষে শ্রেয়াস আইয়ার ২৪ এবং লোকেশ রাহুল ৮ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে লিটন-নাঈম-সৌম্যদের ধ্বংসাত্মক ব্যাটিংয়ের পর ইনিংসের মাঝামাঝি পথ হারিয়ে বড় স্কোরের আশা জলাঞ্জলি দিতে হয়েছে টাইগারদের। টপ অর্ডার ভেঙে পড়ার পর একমাত্র মাহমুদউল্লাহ ছাড়া কেউ দায়িত্ব নিতে পারেননি। যে কারণে রাজকোটের ব্যাটিং স্বর্গে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫৩ রান তুলেছে টিম টাইগার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা