kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সাংবাদিকদের যা বললেন ক্রিকেটাররা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ অক্টোবর, ২০১৯ ১৬:২৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাংবাদিকদের যা বললেন ক্রিকেটাররা

বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ  জাতীয় লিগ, ঘরোয়া লিগ, জিমের সুবিধা, বাজে আম্পায়ারিংসহ নানা ইস্যূতে ধর্মঘট করছেন ক্রিকেটাররা। ঘরোয়া ক্রিকেটে মান উন্নয়ন ও বেতন-ভাতা বাড়ানোসহ ১১ দফা দাবি জানিয়ে আজ সোমবার দুপুর থেকে ক্রিকেটারদের এই আন্দোলন শুরু হয়। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে নজিরবিহীন। দাবি না মানা পর্যন্ত সব ধরণের ক্রিকেট থেকে নিজেদের বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

মিরপুরে বিসিবির একাডেমি মাঠে ক্রিকেটাররা একত্রিত হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন। অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেন, 'ধরুন কেউ রাজশাহী থেকে কক্সবাজার যাবে। তাকে ট্রান্সপোর্ট এলাউন্স দেওয়া হয় ২৫০০ টাকা। এই টাকা দিয়ে তার বাসে যাওয়া ছাড়া উপায় থাকে না। আন্তর্জাতিক এবং ঘরোয়া ক্রিকেটারদের জন্য এই ভাতা অবশ্যই বৃদ্ধি করে বিমানযাত্রার সুবিধা দিতে হবে।' উল্লেখ্য, ক্রিকেটাররা বিমান ভাড়া না পেলেও বিসিবির কর্মকর্তারা যথারীতি বিমানে ভ্রমণ করেন এবং পাঁচ তারকা হোটেলে থেকে আয়েশ করেন।

সাকিব আরও বলেন, 'আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেট মানে ১ম ডিভিশন/২য় ডিভিশন/৩য় ডিভিশনের মান কোথায় তা আমরা অনেকেই জানি, পত্রপত্রিকায়ও আসছে। খেলতে নামার আগেই সবাই জেনে যায় কোন দল জিতবে কোন দল হারবে।'

মাহমুদউল্লাহ বলেন, 'গত কয়েক বছর ধরে জানেন প্রিমিয়ার লিগের পরিস্থিতি কী। এটা নিয়ে কম বেশি সবাই অসন্তুষ্ট। এখানে পারিশ্রমিকের একটা মানদণ্ড বেঁধে দেয়া হয়েছে। খেলোয়াড়দের অনেক লিমিটেশন দেয়া হয়েছে। আগে যেমন ছিল, তেমনটা নেই। খেলোয়াড়রা আগে বাছাই করতে পারতো, কোন দলে খেলবে, পারিশ্রমিক কেমন হবে। আমাদের দাবি হলো আগের মতো যেন প্রিমিয়ার লিগটা ফিরে পাই।'

তামিম ইকবাল বলেন,  'বিদেশি কোচ অনেক টাকা দিয়ে নিয়ে আসা হয়। দেশিয় কোচ ভালো করার পরও আর তাকে নিয়ে আর কাজ করা হয় না। কিন্তু আমরা বিদেশিদের বেশি পারিশ্রমিক দিয়ে নিয়ে আসি। নিজের দেশের দিকে খেয়াল করি না। দেশের একজন কাজ করে মাস শেষে মাত্র ৬ হাজার টাবকা আসে। দেশি কোচদের সম্মানি কেন বাড়ানো হবে না? কেন তাদের তৈরি করা হবে না?'

এনামুল হক বিজয় বলেন, 'আমরা ঘরোয়া পর্যায়ে দুটি লংগার ভার্সনের লিগ খেলি- বিসিএল এবং এনসিএল। কিন্তু ওয়ানডে ফরম্যাটের টুর্নামেন্ট মাত্র একটা। আমরা আরও একটি ওয়ানডে ফরম্যাটের টুর্নামেন্ট চাই। এছাড়া দেশে বিপিএল ছাড়া টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আর কোনো টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হয় না। আমাদের দাবি, বিপিএলের আগে দেশীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে একটি টি-টোয়ন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হোক।'

নুরুল হাসান সোহান বলেন, 'ডমেস্টিক লিগগুলোর জন্য আমাদের একটা ফিক্সড ক্যালেন্ডার থাকতে হবে। যাতে আমরা লিগগুলো সম্পর্কে আগে থেকেই জানতে পারি এবং প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ পাই।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা