kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জয়ের উপায় খুঁজে পেয়েছে ম্যানসিটি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জয়ের উপায় খুঁজে পেয়েছে ম্যানসিটি

ক্রিস্টাল প্যালেসকে শনিবার সহজে হারিয়ে দিয়ে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জয়ে নিজেদের অযোগ্যতার হুমকি থেকে বেরিয়ে এনেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। তবে তলানীর ক্লাব ওয়াটফোর্ডের কাছে পরাজয়ের হাত থেকে বহু কষ্টে নিজেদের রক্ষা করতে সংক্ষম হয়েছে টটেনহ্যাম হটস্পার্স। লিগের সর্বশেষ চার ম্যাচের দুটিতেই দুর্ভাগ্যজনক পরাজয়ে টেবিলের শীর্ষ স্থানের দৌড়ে লিভারপুলের চেয়ে ৮ পয়েন্টে পিছিয়ে আছে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। তবে আপত দৃষ্টিতে ক্লাবটি তাদের সমস্যাকে পাশ কাটাতে পেরেছে বলেই মনে হচ্ছে।

এর আগে টেবিলের নীচের সারিতে থাকা দুটি ক্লাবের বিপক্ষে চেলসি ও লিস্টার সিটি জয়ের দেখা পেলেও হোঁচট খায় টটেনহ্যাম।গাব্রিয়েল জেসুস ও ডেভিড সিলভার গোলে ফর্মে থাকা প্যালেসকে ২-০ গোলে হারায় সিটি। এ সময় গোটা দলটিই প্রেরইাদায়ী পারফর্মেন্স দেখিয়েছে, যদিও বেশ কটি সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি। কারণ প্যালেসের গোলরক্ষক ওয়েইন হেনেসিও ছিলেন এ সময় অপ্রতিরোধ্য। ম্যাচে গার্দিওলার রক্ষণভাগটিও ছিল দারুণ সংহত। আক্রমণভাগ ছিল একেবারেই খুনে মেজাজে। প্রতিপক্ষের গোলবারে ২১টি শট নিয়েছে তারা।

সিটি কোচ খেলা শেষে স্কাই স্পোর্টসকে বলেন, 'যে সুযোগগুলো আমরা পেয়েছি দুর্ভাগ্যবশত তার অধিকাংশই কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছি। কিন্তু আন্তর্জাতিক বিরতির পর এই তিন পয়েন্টের প্রাপ্তিটাও গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি পরবর্তীতে আমরা এখান থেকেই শুরু করব এবং ভাল পারফর্মেন্স অব্যাহত রাখব। তাদের অধিনায়ক প্রচুর গোল বাঁচিয়েছে। তবে আমরা ছিলাম একেবারেই আগ্রাসী।'

এর আগে ওয়াটফোর্ডের মাঠে শিষ্যদের ধুঁকতেই দেখলেন স্পার্স কোচ মরিসিও পচেত্তিনো। যদিও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে সক্ষম হয়েছে তার দলটি। আগের ম্যাচে ব্রাইটনের কাছে ৩-০ গোলে হার মানা ক্লাবটি তারও আগের ম্যাচে ৭-২ গোলের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখের কাছে।

গত জুনে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল খেলা স্পার্সরা এই মৌসুমে তাদের ১২টি ম্যাচের মধ্যে জয় পেয়েছে মাত্র তিনটিতে। ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে আব্দুলাই ডাউকোরের গোলে ফের পরাজয়ের আতংকে ফেলা স্পার্সদের শেষ মুহূর্তে রক্ষা করেন ডেলে আলি। ম্যাচের ৮৬ মিনিটে তিনি গোলটি পরিশোধ করলে কোন রকমে মান বাঁচানো পয়েন্ট সংগ্রহ করতে সক্ষম হয় টটেনহ্যাম।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা