kalerkantho

শনিবার। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৫ ডিসেম্বর ২০২০। ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

প্রিয় 'দাদা' প্রেসিডেন্ট হওয়ায় উচ্ছসিত গম্ভীর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২১:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রিয় 'দাদা' প্রেসিডেন্ট হওয়ায় উচ্ছসিত গম্ভীর

সাবেক অধিনায়ক থেকে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) প্রেসিডেন্ট; এরপর সোজা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট হয়ে গেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। প্রিয় 'দাদা' বোর্ডের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় এবার অভিনন্দন জানালেন গৌতম গম্ভীর। ভারতের সাবেক এই ওপেনার বর্তমানের সাংসদ গম্ভীরের মতে, ভারতীয় ক্রিকেটের মাথায় এমন একজন, যে গোটা ইকোসিস্টেম বোঝে। এটা ভেবেই আনন্দ হচ্ছে।

সমস্যা হলো, মাত্র ১০ মাসের জন্য প্রেসিডেন্ট পদে বসেছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে লোধা কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী, আগামী বছর জুলাইয়ে প্রশাসক পদ থেকে সরে যেতে হবে তাকে। এরপর তিনি কুলিং অফ পিরিয়ডে চলে যাবেন। তবে টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় গম্ভীর লিখেছেন, 'কীভাবে এটা ঘটল, আমি জানি না। জানতেও চাই না। তবে আমার একটাই আশা, দাদা যেন ১০ মাসের বেশি সময় থাকতে পারেন। সেটা না হলে তার প্রেসিডেন্ট হওয়া ঠিক কাজে আসবে না।'

তিনি আরও লিখেছেন, 'সিএবিতে গিয়ে দেখুন। দাদা যা কাজ করেছে তা প্রমাণ করে যে উনি শুধু সাবেক সফল অধিনায়কই নন; তার প্রশাসনিক দক্ষতাও আছে। যা আরও একবার পরীক্ষার মুখে। তবে দাদাকে আমি যতটা চিনি, তিনি দেশের ক্রিকেটে ভালো উন্নতি করে দেখাবেন। বিসিসিআইয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট জগমোহন ডালমিয়া না থাকলে দাদার পক্ষে অসুবিধা হত। ড্রেসিং রুমে দাদা যেমন সমর্থন পেয়েছিলেন, তেমনই সমর্থন প্রয়োজন বিসিসিআইয়ের অন্যদের থেকেও।'

নিজের খেলোয়াড়ী জীবনের স্মৃতিচারণ করে গম্ভীর লিখেছেন, 'সেই সময় জন রাইটের সঙ্গে কাজ করে শেবাগ, নেহরা, যুবরাজ, হরভজন, জাহিরের মতো ক্রিকেটারদের তুলে এনেছিলেন দাদা। এই কাজের ক্ষেত্রে ওই সময় তিনি শচীন টেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড়, অনিল কুম্বলে কিংবা ভিভিএস লক্ষ্মণদের মতো ক্রিকেটারদের সমর্থনও পেয়েছিলেন। এবারও একই সমর্থন প্রয়োজন। বিশ্বাস করুন, দুনিয়া এখন আরও বেশি আগ্রহ নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট দেখবে।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা