kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

লিটন-নাইমের জোড়া সেঞ্চুরি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লিটন-নাইমের জোড়া সেঞ্চুরি

ওপেনার লিটন দাস ও নাইম ইসলামের জোড়া সেঞ্চুরিতে ২১তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম স্তরের ম্যাচে ঢাকা বিভাগকে দুর্দান্তভাবে জবাব দিচ্ছে রংপুর বিভাগ। ডান-হাতি ব্যাটসম্যান সাইফ হাসানের অপরাজিত ২২০ রানের সুবাদে ৮ উইকেটে ৫৫৬ রানে ইনিংস ঘোষণা করে ঢাকা বিভাগ। জবাবে লিটনের ১২২ ও নাইমের অপরাজিত ১২৪ রানে তৃতীয় দিন শেষে ৫ উইকেটে ৩৩৪ রান করেছে রংপুর বিভাগ। তৃতীয় দিন শেষে ৫ উইকেট হাতে নিয়ে ২২২ রানে পিছিয়ে রংপুর।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় দিন শেষে গতকাল রংপুরের সংগ্রহ ছিল ২ উইকেটে ৭১ রান। ৮টি চারে ৬৪ বল মোকাবেলা করে ৫১ রানে অপরাজিত ছিলেন লিটন। তার সঙ্গী নাইমের সংগ্রহ ছিলো ৮ রান। তৃতীয় দিন ব্যাট হাতে বড় জুটি গড়েছেন লিটন-নাইম। উইকেটে সেট হয়ে ঢাকা বিভাগের বোলারদের বিপক্ষে দক্ষতার সাথে মোকাবেলা করতে থাকেন তারা। ফলে বড় হতে থাকে রংপুরের স্কোর।

মধ্যাহ্ন-বিরতির আগেই সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন। হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ পান নাইমও। এতে ২ উইকেটে ১৭৪ রান নিয়ে মধ্যাহ্ন-বিরতিতে যায় রংপুর। বিরতির পর উইকেট পতনের তালিকায় নাম তুলেন লিটন। ১৮৯ বলে ১৪টি চারে ১২২ রান করে পেসার সুমন খানের বলে আউট হন লিটন। তৃতীয় উইকেটে ১৫৪ রান যোগ করেন লিটন- নাইম। তবে দলীয় ১৯৮ রানে লিটনের আউটের পর দ্রুত ২ উইকেট হারায় রংপুর।

অধিনায়ক নাসির হোসেন ১ ও আরিফুল হক ১৭ রান করে আউট হন। তাদের বিদায়ের পর তানবীর হায়দারকে নিয়ে আবারো বড় জুটির চেষ্টা করেন নাইম। এই জুটি গড়ার পথে সেঞ্চুরির স্বাদ নেন নাইমও। তাই তিন অংকে পা দিয়ে অপরাজিত ১২৪ রানে দিন শেষ করেন নাইম। ২৯৬ বল মোকাবেলা করে ১২টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন তিনি। হাফ সেঞ্চুরি তুলে ৫২ রানে অপরাজিত থাকেন তানবীর। ১০১ বলের ইনিংসে ৭টি চার মারেন তিনি। ঢাকা বিভাগের সুমন-শাকিল ২টি করে উইকেট নেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা