kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শোয়েবের মন্তব্য শুনলে গলা ছেড়ে কাঁদবেন সরফরাজ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শোয়েবের মন্তব্য শুনলে গলা ছেড়ে কাঁদবেন সরফরাজ

একদিন আগেই তিন ফরম্যাটের নেতৃত্ব হারিয়েছেন পাকিস্তানের সরফরাজ আহমেদ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর তার এই পরিণতি। এবার শোয়েব আখতার যা বললেন, তা শুনলে সরফরাজের চোখ ফেটে জল আসতে পারে। কারণ সাবেক স্পিডস্টার বলেছেন, পিসিবি তাকে আর জাতীয় দলে দেখতে চায় না। যে কারণে সরফরাজ আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সুযোগ নাও পেতে পারেন! ইতিমধ্যেই সরফরাজ অস্ট্রেলিয়া সফরের দল থেকে বাদ পড়েছেন।

সাজানো ক্যারিয়ারে হুট করে এমন পরবর্তন আসায় সরফরাজ অবশ্যই অপ্রস্তুত হয়ে পড়েছেন। এর মাঝেই যেন ১৬১ কিলোমিটার গতির একটি আগুনের গোলা ছুড়লেন শোয়েব। তিনি বলেছেন, 'পিসিবি তাকে আর জাতীয় দলে দেখতে চায় না। তাই তার ভবিষ্যৎ সম্বন্ধে আমরা জানি না। ২০১৪ সালে সে দলে ফেরার পর আক্রমণাত্মক খেলেছে। কিন্তু দলের নেতৃত্ব পাওয়ার পর সে কীভাবে যেন একজন 'ভীতু অধিনায়ক' হয়ে উঠল! কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারত না। সবকিছু মিকি আর্থারই (সাবেক কোচ) করত। ও নিজের দোষেই এই অবস্থায় পড়েছে।'

জানা গেছে, সরফরাজের ওপর বেজায় ক্ষিপ্ত ছিলেন পাকিস্তানের বর্তমান কোচ মিসবাহ উল হক। কোচের বাইরে সরফরাজ নিজে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারতেন না। মাঠে দুলকি চালে হাঁটতেন। এসব কারণে বেশ কিছুদিন ধরেই তিনি অধিনায়কত্বের দায়িত্ব থেকে সরফরাজকে সরাতে চেয়েছিলেন। পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খানের কাছে গিয়েও সরফরাজের প্রতি নিজের অসন্তুষ্টির কথা জানিয়ে এসেছিলেন মিসবাহ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে  দল বাজে করার ফলে মিসবাহর পথ আরও পরিস্কার হয়ে গেল। আর কপাল পুড়ল সরফরাজের। এবার তার ক্যারিটারটা টিকলেই হয়। কিন্তু পরিস্থিতি পুরোপুরি সরফরাজের বিপক্ষে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা