kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সাইফের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:৫০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাইফের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি

২১তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম স্তরের ম্যাচের প্রথম দিনই রংপুর বিভাগের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করলেন ঢাকা বিভাগের ডান-হাতি ব্যাটসম্যান সাইফ হাসান। ১২০ রানের ইনিংস খেলে আহত অবসর নেন তিনি। তার ব্যাটিং নৈপুন্যে প্রথম দিন শেষে ৯০ ওভারে ৪ উইকেটে ৩১৪ রান করেছে ঢাকা বিভাগ।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে ঢাকা বিভাগ। আব্দুল মাজিদকে নিয়ে দারুন সূচনা করেন রনি তালুকদার। ২০ ওভারে ৬৬ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন মাজিদ ও রনি। এরমধ্যে ১৭ রান অবদান রেখে আউট হন মাজিদ। তবে এই রাউন্ডেও হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন রনি। প্রথম রাউন্ডে রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে দুই ইনিংসে ৬৩ ও ২০ রান করেছিলেন রনি। হাফ-সেঞ্চুরির পর এবারও নিজের ইনিংসটা বড় করতে পারেননি রনি। ১১৪ বলে ১০টি চারে ৬৫ রান করে ফিরেন এই ডান-হাতি ব্যাটসম্যান।

দলীয় ৯৯ রানে রনির বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন সাইফ ও রাকিবুল হাসান। উইকেটে সাথে মানিয়ে নিয়ে দলের স্কোর বড় করতে থাকেন তারা। চা-বিরতিতে যাবার আগে দলের স্কোর দু’শ পার করেন সাইফ-রাকিবুল। এসময় সাইফ ৬৬ ও রাকিবুল ৪৯ রানে অপরাজিত ছিলেন। চা-বিরতির পর রাকিবুল হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন। তবে এরপরই প্যাভিলিয়নে ফিরতে হয় তাকে। ৯৩ বলে ৮ বাউন্ডারিতে ৫৭ রান করে আউট হন রাকিবুল। তৃতীয় উইকেট জুটিতে ১২৭ রান যোগ করেন সাইফ-রাকিবুল।

রাকিবুল ফিরলেও সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। তিন অংকে পা দিয়েও উইকেটে টিকে থাকায় মনোযোগী ছিলেন সাইফ। তবে ব্যক্তিগত ১২০ রানে আহত অবসর নেন তিনি। ১৭৩ বলে ১৩টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১২০ রান করেন ২০ বছর বয়সী সাইফ। প্রথম রাউন্ডে রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে দুুই ইনিংসেই ৮৮ রান করে করা তাইবুর, আজও সাবলীল ভঙ্গিমায় নিজের ব্যাটিং শুরু করেছিলেন। বড় ইনিংসের আভাস দিচ্ছিলেন আগের ম্যাচের সেরা তাইবুর। কিন্তু এবার আর বড় ইনিংস খেলতে পারলেন না তিনি। থেমে গেলেন ৩৫ রানে। তার ৬৫ বলের ইনিংসে ৩টি চার ছিল।

দিনের খেলা শেষ হবার ২৩ বল আগে আউট হন তাইবুর। এরপর দিনের বাকী সময়টুকু বিপদ ছাড়া শেষ করেন শুভাগত হোম ও সুমন খান। শুভাগত ৮ ও সুমন ২ রানে অপরাজিত আছেন। রংপুর বিভাগের সোহরাওয়ার্দি শুভ ২টি ও রবিউল হক-মাহমুদুল হাসান ১টি করে উইকেট নেন। প্রথম রাউন্ডে নিজ নিজ ম্যাচ ড্র করেছিল ঢাকা বিভাগ ও রংপুর বিভাগ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা