kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ভারতের দাবি কানেই তুলল না আইসিসি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৯:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতের দাবি কানেই তুলল না আইসিসি

আবার দ্বন্দ্ব শুরু হলো সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড ভারত আর আইসিসির মধ্যে। বিসিসিআইয়ের আপত্তির পরও ভবিষ্যৎ সূচির পরবর্তী চক্রে টুর্নামেন্ট বাড়াচ্ছে আইসিসি। গতকাল সোমবার দুবাইয়ে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট বাড়ানোর প্রস্তাব আইসিসির সভায় অনুমোদন পেয়েছে। ২০২৩ বিশ্বকাপের পর থেকে শুরু হবে নতুন এই চক্র, চলবে ২০৩১ সাল পর্যন্ত। এরপর আইসিসির প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠানো ই-মেইলে প্রবল আপত্তি জানিয়েছেন বিসিসিআইয়ের প্রধান নির্বাহী। খবর ইএসপিএন ক্রিকইনফোর।

জানা গেছে, ৮ বছরের এই চক্রে প্রতি বছরই থাকছে একটি করে আইসিসি টুর্নামেন্ট। ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ থাকছে দুটি, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চারটি। সঙ্গে থাকছে আরও দুটি বাড়তি আসর। সীমিত ওভারের দুই সংস্করণের বিশ্বকাপের পাশাপাশি আগে ছিল আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ৬ দলকে নিয়ে নতুন এই টুর্নামেন্ট দুটি ছোট পরিসরে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির মতোই হবে। ছেলেদের এই ৮টি টুর্নামেন্টের পাশাপাশি থাকছে মেয়েদের ৮টি বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট, অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ে ছেলে ও মেয়েদের চারটি করে টুর্নামেন্ট।

মেয়েদর টুর্নামেন্ট নিয়ে ঝামেলা না থাকলেও ছেলেদের সূচি নিয়ে এর মধ্যেই আপত্তি জানিয়েছে ভারত। নতুন বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট যুক্ত হওয়া মানে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের সূচিতে তা প্রভাব ফেলবে। সব দলেরই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ কমে যাবে। আর দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলো থেকে ভারতের আয় অনেক অনেক বেশি। নতুন বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট থেকে আইসিসির রাজস্ব বাড়লেও তাই আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বিসিসিআই। বেশিরভাগ দেশের বোর্ডগুলো আইসিসির এই সিদ্ধান্তে আপত্তি করেনি। কারণ এটাই তাদের জন্য লাভজনক হতে যাচ্ছে। অন্যদিকে প্রতিটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজে বিপুল আয় করা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের আয়ে টান পড়বে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা