kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আনন্দ সংবাদের পরদিন দুঃসংবাদ পেল নেপাল!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আনন্দ সংবাদের পরদিন দুঃসংবাদ পেল নেপাল!

তিন বছর পর গতকাল আবারো ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সদস্যপদ ফিরে পেয়েছে নেপাল। তাই গতকাল থেকে আনন্দে ভাসছিল দেশটি। কিন্তু আজই দেশকে দুঃসংবাদ দিলেন জাতীয় দলের অধিনায়ক পরশ খাড়কা। নেপাল দলের অধিনায়কত্বই ছেড়ে দিলেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষনা দেন পরশ।

টুইটারে পরশ লিখেন, 'নেপালের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে, তা জেনে ভালো লাগছে এবং নেপাল ক্রিকেটের নতুন কমিটি, খেলোয়াড় ও অংশীজনরা দেশের ক্রিকেটের উন্নতির জন্য ভালোভাবে কাজ করবে বলে আমি আশাবাদি। নেপাল ক্রিকেটের অধিনায়কত্বের পদ থেকে আমি অব্যাহতি নিলাম। আমার এ পথ চলার সময়ে পাশে থাকার জন্য সকল সতীর্থ, কোচ, আম্পায়ার, গ্রাউন্ডসম্যান, বন্ধু ও আমার পরিবারকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।'

২০১৪ সালে নেপাল জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে অধিনায়ক হন পরশ। তার অধীনে ২৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ১১টিতে জয় ও ১৫টি হারে নেপাল। এছাড়া ২০১৮ সালের জুলাইয়ে নেপালের ওয়ানডে দলের অধিনায়কত্ব পান পরশ। চলতি বছরের শুরুতে তার অধীনে প্রথম ওয়ানডে সিরিজ জয় করে নেপাল। প্রতিপক্ষ ছিলো সংযুক্ত আরব আমিরাত। ঐ সিরিজেই নেপালের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডে ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করেন পরশ।

ওয়ানডের পর গত সেপ্টেম্বরে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটেও নেপালের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরি করেন পরশ। অধিনায়ক হিসেবে সেঞ্চুরি করে টি-টোয়েন্টির রেকর্ড বইয়ে নিজের নাম তুলেন ৩১ বছর বয়সী এই ডান-হাতি ব্যাটসম্যান। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে পরশর আগে পাঁচজন সেঞ্চুরি করেছিলেন। তারা হলেন- ভারতের রোহিত শর্মা, শ্রীলংকার তিলকরত্নে দিলশান, অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন-অ্যারন ফিঞ্চ ও দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ ডু-প্লেসিস।

এই পাঁচজনের সাথে এক কাতারে থাকলেও, তাদের সাথে অন্য একটি রেকর্ডে আলাদা পরশ। সেটি হলো- তারা পাঁচজনই ম্যাচের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করেছেন। আর পরশ করেছিলেন ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে। তাই অধিনায়ক হিসেবে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করা একমাত্র খেলোয়াড় এখনও পরশ। ৬ ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে ৩টি করে জয়-হারের স্বাদ দিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা