kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পেইনের অবসরের আগে অধিনায়ক হওয়া হচ্ছে না স্মিথের!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ২১:৫৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পেইনের অবসরের আগে অধিনায়ক হওয়া হচ্ছে না স্মিথের!

নেতৃত্ব নিয়ে কঠিন সময় পার করে এখন ভালো সময় দেখছেন টিম পেইন। তার নেতৃত্বে প্রথমবারের মত পূর্ণাঙ্গ সিরিজে অংশ নিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে পাকিস্তানের কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে গেছে অস্ট্রেলিয়া। এর আগে ভারতের কাছেও হোম সিরিজ হারতে হয়েছে। অজি টেস্ট অধিনায়কের ভূয়সি প্রশংসা করে দলটির কোচ জস্টিন ল্যাঙ্গার বলেছেন, নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফেরা স্টিভ স্মিথকে ফের নেতৃত্বে ফিরিয়ে আনার আপাতত কোনো সুযোগ নেই।

পাকিস্তান ও ভারতের কাছে হারের পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয় করেছে অস্ট্রেলিয়া। শুধু তাই নয় ২০০১ সালের পর ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথমবারের মতো অ্যাশেজ শিরোপা অক্ষুন্ন রেখেছে তারা। ওই সিরিজ ২-২ ম্যাচে ড্র হয়েছে। দলের ওই সফলতার সব কৃতিত্ব অধিনায়ককেই দিয়েছেন ল্যাঙ্গার। যদিও সে এটিও বলছেন যে ৩৫ বছর বয়সী এই ক্রিকেটোরের উন্নতির অনেক জায়গা রয়ে গেছে। তাসমানিয়ার এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের হাতেই যতদিন সম্ভব এই অধিনায়কত্বের ঝান্ডা রেখে দেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন ল্যাঙ্গার। 

বল টেম্পারিংয়ের দায়ে নেতৃত্ব হারানো এবং নিষিদ্ধ হওয়া স্মিথের নেতৃত্ব ফিরে পাবার সুযোগ আপাতত থাকছে না। এবিসি গ্র্যান্ডস্টান্ডকে অজি কোচ বলেন, 'টিম পেইন এই মুহূর্তে খুবই ভালো করছে। অধিনায়ক হিসেবে অসাধারণ কাজ করছে। তবে সে কতদিন খেলা চালিয়ে যেতে পারবে সেটি অন্য বিষয়। আমিও অন্যদের মতো নিশ্চিত যে এখন সে বেশ ভালোই করছে। টিম পেইনের যে বিষয়টা সুন্দর সেটি হচ্ছে প্রতিটি মুহূর্তেই সে উন্নতি করছে। এটিই তার এবং আমাদের জন্য উৎসাহ ব্যাঞ্জক।'

ল্যাঙ্গার মতে, পেইন যখন দল ছাড়বেন তখনই স্মিথের কাছে নেতৃত্ব দেয়া যেতে পারে। এই মুহূর্তে স্মিথ বিশ্ব সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যান। সীমিত ওভারের ক্রিকেটেও অস্ট্রেলিয়া দলের মহাতারকা তিনি। মৌসুমের শেষভাগে অস্ট্রেলীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার হয়ে উঠেছেন স্মিথ। ২০১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের পর অ্যাশেজ সিরিজেও ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছিলেন তিনি। টেস্ট সিরিজ শেষে ১১০.৫৭ গড়ে ৭৭৪ রান তুলেছেন। ল্যাঙ্গারের আশংকা, নেতৃত্বের বাড়তি বোঝা কাঁধে নিলে তার স্বাভাবিক দক্ষতায় ভাটা পড়তে পারে।

ল্যাঙ্গার বলেন, 'কোনটা সেরা হবে সেটি আমাদের খুঁজে বের করতে হবে। আপনারা দেখেছেন অ্যাশেজ শেষ হওয়ার পর তার উপর কতটা ক্লান্তি ভর করে ছিল। এতেই বুঝা যায় ব্যাটিংয়ে সে কতটা প্রচেষ্টা চালিয়েছেন। এর বাইরে নেতৃত্বের বাড়তি চাপ তার কাঁধে চাপিয়ে দেয়া কতটা সমীচিন হবে সেটি ভেবে দেখতে হবে।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা