kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মেয়েদের আত্মবিশ্বাস এখন তুঙ্গে : গোলাম রব্বানী ছোটন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেয়েদের আত্মবিশ্বাস এখন তুঙ্গে : গোলাম রব্বানী ছোটন

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশীপে ধারাবাহিকভাবে ভালো পারফর্মেন্সের কারণে বাংলাদেশ দলের মেয়েদের আত্মবিশ্বাস এখন তুঙ্গে। টুর্নামেন্টের ফাইনালে আগামীকাল ভারতের মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ। ভুটানের রাজধানী থিম্পুর চংলিমিথাং স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ। তার আগে শিষ্যদের নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করলেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৫ নারী দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন।

আসন্ন ফাইনালকে সামনে রেখে ছোটন বলেন, 'ভালো ফুটবল খেলার লক্ষ্য নিয়েই আমরা অপেক্ষাকৃত কম বয়সী মেয়েদের নিয়ে এই টুর্নামেন্টে খেলতে এসেছি। ইতোমধ্যে প্রত্যাশা অনেকটাই পুরণ করেছে তারা। প্রথম ম্যাচে আমরা জয় চাইছিলাম যেটি মেয়েরা অর্জন করেছে। দ্বিতীয় ম্যাচে নেপালকে হারিয়ে দিয়ে দারুন আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠে তারা। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছি। লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে চ্যাম্পিয়ন ভারতের সঙ্গে ড্র করার ঘটনাটি ছিল মেয়েদের জন্য দারুন এক অর্জন। আশা করি ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ফের একই রকম পারফর্মেন্স দেখাতে পারবে মেয়েরা।'

এর আগে স্বাগতিক ভুটান কিশোরীদের ২-০ গোলে হারিয়ে টুর্নামেন্টে উড়ন্ত সূচনা করেছে বাংলাদেশের কিশোরীরা। পরের ম্যাচে তারা নেপালকে হারায় ২-১ গোলে। লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে শক্তিশালি ভারতের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে বাংলাদেশ। অপরদিকে প্রথম ম্যাচে নেপালকে ৪-১ গোলের ব্যবধানে হারানো ভারত তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বগতিক ভুটানকে উড়িয়ে দিয়েছে ১০-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে। টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে তিন ম্যাচের সব কটিতে জয়ের মাধ্যমে শিরোপা লাভ করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ভুটানে অনুষ্ঠিত গত আসরের ফাইনালে ভারতের কাছে একমাত্র গোলে পরাজিত হয় তারা।

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৫ স্কোয়াড : রূপনা চাকমা, ইয়াসমিন আক্তার, উন্নতি খাতুন, নাসরিন আক্তার, সামসুন্নাহার জুনিয়র, সোহাগি কিসকু, রোজিনা আক্তার, কোহাতি কিসকু, শাহেদা আক্তার, রেহেনা আক্তার, নওসুন জাহান, আবেদা আক্তার, আফ্রিদা খন্দকার, মাহফুজা খাতুন, মেহেনুর আক্তার, নুসরাত জাহান, ইতি খাতুন, জয়নব বিবি, সুমি খাতুন, সুরমা জান্নাত, পুর্নিমা রাণী, রুমি আক্তার ও স্বপ্না রাণী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা