kalerkantho

শনিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৭। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১ সফর ১৪৪২

মেঘের উপর দিয়ে হাঁটছেন মায়াঙ্ক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেঘের উপর দিয়ে হাঁটছেন মায়াঙ্ক

পুনে টেস্টে সেঞ্চুরির পর মায়াঙ্ক আগরওয়ালের উদযাপন। ছবি : এএফপি

সাদা পোশাকে সবচেয়ে বিধ্বংসী এক ওপেনিং জুটি পেয়ে গেছে ভারত। দুই ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়াল আর রোহিত শর্মা যেন সেঞ্চুরির প্রেমে পড়ে গেছেন। বিশাখাপত্তনমে গত টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো মায়াঙ্ক আগরওয়াল এবার পুনেতে চলতি দ্বিতীয় টেস্টও তিন অংক ছুঁয়েছেন। নিজেকে বদলে ফেলা এই ওপেনার যেন এখন মেঘের উপর দিয়ে হাঁটছেন।

কাগিসো রাবাদার বলে আউট হওয়ার আগে মায়াঙ্ক করেন ১০৮ রান। তার ইনিংসে সাজানো ছিল ১৬টি বাউন্ডারি ও ২টি বিশাল ছক্কায়।  এই নিয়ে মায়াঙ্ক দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ধারাবাহিকভাবে দুটি টেস্টে সেঞ্চুরি করে ফেললেন। যার ফলে এখন থেকে ভারতের সাবেক ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগ, মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন, শচীন টেন্ডুলকারের সঙ্গে এক নিঃশ্বাসে মায়াঙ্কের নামও উচ্চারিত  হবে। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পরপর দুই টেস্টে সেঞ্চুরির রেকর্ড আছে এই মহাতারকাদের।

৯ বছর আগে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে নাগপুর ও কলকাতা টেস্টে সেঞ্চুরি করেছিলেন বীরেন্দ্র শেবাগ। নাগপুরে তিনি করেছিলেন ১০৯ আর কলকাতায় তার ইনিংসটি ছিল ১৬৫ রানের। ১৯৯৬ সালে মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন নিজের ব্যাটিং স্টাইল বদলে ফেলেছিলেন। মারকুটে আজহারকে আবিষ্কার করেছিল ভারতের ক্রিকেটাঙ্গন। সাবেক এই অধিনায়ক দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কলকাতায় ১০৯ ও কানপুরে অপরাজিত ১৬৩ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেছিলেন।

এই রেকর্ডে 'মাস্টার ব্লাস্টার' শচীন টেন্ডুলকারের নাম না থাকলে রেকর্ডটটি যেন পরিপূর্ণতা পেত না। ও পিছিয়ে নেই। ২০১০ সালে নাগপুরে ১০০, কলকাতায় ১০৬ করার পর সেঞ্চুরিয়নে অপরাজিত ১১১ রান করেছিলেন ভারতের ক্রিকেট ঈশ্বর। এবার এই তিনজনের নামের পাশে যুক্ত হলো মায়াঙ্কের নাম। আরেক ওপেনার রোহিত শর্মারও সুযোগ আছে এই রেকর্ড গড়ার। বিশাখাপত্তনমে দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন 'হিটম্যান'। আজ ১৪ রান করে আউট হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে তো সুযোগ থাকছেই তার সামনে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা