kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

শতভাগ আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ : মোসাদ্দেক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:৪৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শতভাগ আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ : মোসাদ্দেক

ফাইল ছবি

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে আজ বুধবার নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শতভাগ আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ। এ ম্যাচ জিতলেই সিরিজের ফাইনাল নিশ্চিত হবে টাইগারদের। তাই ফাইনাল নিশ্চিত করতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ দল আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবে বলে জানালেন টাইগার ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন।

গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে মোসাদ্দেক বলেন, ‘আমাদের একটা মোমেন্টাম জরুরী। একটা ম্যাচ জেতা আসলে দরকার। আমরা প্রথম ম্যাচ জিতেছি এবং একটা ম্যাচ হেরেছি। পরবর্তী ম্যাচটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমরা জেতার জন্যই খেলব। শতভাগ আক্রমণাত্মক ক্রিকেটই খেলব।’

এখন পর্যন্ত দুটি ম্যাচ খেলে একটি করে জয় ও হারের স্বাদ নিয়েছে টাইগাররা। একটি জয় ছিল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। তবে কর্ষ্টাজিত জয় ছিল সেটি। আফিফ হোসেন ও মোসাদ্দেকের ব্যাটিং নৈপুন্য জয় এনে দিয়েছিল বাংলাদেশকে। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে হারে টাইগাররা। তবে প্রত্যক ম্যাচেই বাংলাদেশ জয়ের জন্য খেলে উল্লেখ করে মোসাদ্দেক বলেন, ‘যখন ম্যাচ খেলি অবশ্যই প্রত্যেকটা ম্যাচ জেতার জন্য খেলি। আসলে আমাদের সামনে আরও তিনটা ম্যাচ আছে, যদি ফাইনাল খেলি। খুব বেশি চিন্তা না করে আমার মনে হয় আমরা পরের ম্যাচটা জেতার জন্যই খেলব। অন্য কোন চিন্তা করার বিকল্প নেই।’

দ্বিতীয় ম্যাচ হারের পর বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব বলেছিলেন, ‘কী করতে হবে বুঝতে পারছে না।’ বাংলাদেশ দলের কি আত্মবিশ্বাসে আসলেই ঘাটতি আছে? সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে মোসাদ্দেক বলেন, ‘আসলে স্বাভাবিকভাবে ব্যাটসম্যানরা যখন রান না করে তখন আত্মবিশ্বাস দুর্বল থাকে সেটাই স্বাভাবিক। মূলত আমরা ম্যাচটা হারছি হয়ত ২০ রানের মতো ব্যবধানে। আফগানিস্তানের কাছে আমরা ২৫ রানে হেরেছি, তাতে আমাদের আত্মবিশ্বাস অনেক কমে গেছে। আমাদের পরিকল্পনায় ভুল ছিলো।’

আফগানিস্তানের স্পিনারদের সামলাতে বেশ সমস্যা হচ্ছে বাংলাদেশের। এমনটা স্বীকারও করলেন মোসাদ্দেক। বলেন, ‘তাদের বেশিরভাগই রিস্ট স্পিনার এবং তাদের বিপক্ষে আক্রমনাত্মকভাবে খেলা যায় না। তাই আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে এবং নিজেদের আরও ভালোভাবে প্রয়োগ করতে হবে।’

সাকিবের অধিনায়কত্ব নিয়ে সমালোচনা হওয়ায় মোসাদ্দেককে দায়িত্ব দেয়ার গুঞ্জনও উঠেছে। তবে এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না মোসাদ্দেক। তিনি বলেন, ‘আসলে আমি এ ব্যাপারে জানি না কিছুই। যখন এ রকম কথা হবে অবশ্যই আমার সঙ্গে কথা বলবেন, সেটা আলোচনা সাপেক্ষে হয়ত আমি চিন্তা করব।’

আর অধিনায়কের বিষয়টি সম্পূর্ণ ম্যানেজমেন্টের, তাই এসব নিয়ে আপাতত ভাবতে চান না এই তরুণ ক্রিকেটার।

মোসাদ্দেক বলেন, ‘আসলে বর্তমান অবস্থায় ওভাবে চিন্তা করছি না। ম্যানেজমেন্টে যারা আছে তারা খুব ভাল বলতে পারবে। টিমে অবদানের কথা যদি বলেন, সবাই পারফর্ম করা শুরু করেছে এবং চেষ্টা করছে অবদান রাখার। আমি মনে করি আমার জায়গা থেকে আমি চেষ্টা করব আমি কতটুকু অবদান রাখতে পারছি। এখন আমি এটার ওপর ফোকাস করছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা