kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বদ অভ্যাসটা গেল না মুশফিকের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বদ অভ্যাসটা গেল না মুশফিকের

গতকাল চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিন এভাবেই বদ অভ্যাসের প্রদর্শনী দেখান মুশফিক। ছবি : সংগৃহীত

তার ব্যাটিং নিয়ে কোনো কথা নেই; বাংলাদেশের সবচেয়ে সেরা টেকনিক্যালি সলিড ব্যাটসম্যান তিনি। কিন্তু মুশফিকুর রহিমের একমাত্র সমালোচনা তার কিপিং নিয়ে। বহু শিশুসুলভ ভুল তিনি করে থাকেন উইকেটকিপিংয়ে। বিসিবির পক্ষ থেকে বেশ কয়েকবার তাকে সরিয়ে লিটন দাসকে কিপিংয়ের দায়িত্ব দেওয়ার চেষ্টা করা হলেও বারবার জেদ করেই মুশফিক ফিরে এসেছেন। এবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে চলতি টেস্টেও দেখা গেল তার কিপিংয়ের নমুনা!

গতকাল ম্যাচের চতুর্থ দিন বোলিং শুরু করেছিলেন সাকিব আল হাসান। তার প্রথম ওভারের পঞ্চম বলটি পয়েন্ট অঞ্চলে ঠেলেই রানের জন্য পড়িমরি করে ছুটেছিলেন আফসার জাজাই। অন্য প্রান্ত থেকে সাড়া দেন ইয়ামিন আহমদজাই। কিন্তু পয়েন্ট থেকে ফিল্ডারের দ্রুতগতির থ্রো রান-আউটের সুযোগ তৈরি করে। অথচ এক যুগ সময়ের বেশি অভিজ্ঞ উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিম সহজ সুযোগটা  মিস করেন! কারণ তার পুরনো অভ্যাস। থ্রো আসার আগেই স্টাম্পের সামনে গিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন মুশফিক। তাতে বল ধরে স্টাম্প ভাঙতে দেরি হয়ে গেছে।

গত বিশ্বকাপেও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রায় জিতে যাওয়া ম্যাচে এমন শিশুসুলভ ভুল করেছিলেন মুশফিক। যা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছিল। তামিম ইকবালের থ্রো সরাসরি স্টাম্পে লাগতে পারত। আউট হয়ে যেতেন কেন উইলিয়ামসন। কিন্তু মুশফিক স্টাম্পের সামনে দাঁড়িয়ে বল ধরার চেষ্টা করায় তাঁর শরীরে লেগে স্টাম্প আগেই ভেঙে যায়। যে কারণে সে যাত্রা বেঁচে যান কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন। কিপার বল ধরতে সবসময় উইকেটের পেছনে থাকবেন- এটা খুব সাধারণ একটা থিওরি। কিন্তু মুশফিক বারবার একই কাজ করে যাচ্ছেন। তার কিপিং নিয়ে এবার সিরিয়াসলি ভাবার সময় হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা