kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাংলাদেশের কাছে 'দুর্বোধ্য' উইকেটেই আফগানদের সাবলীল ব্যাটিং

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশের কাছে 'দুর্বোধ্য' উইকেটেই আফগানদের সাবলীল ব্যাটিং

ছবি : বিসিবি

প্রথম ইনিংসে ভালো ব্যাটিংয়ের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছে সফরকারী আফগানিস্তান। টেস্ট ক্রিকেটের নবীনতম দলটি বাংলাদেশের বিপক্ষে বড় লিডের পথে রয়েছে। সাকিবের জোড়া আঘাতে ভিন্ন কিছুর ইঙ্গিত দিলেও এই মুহূর্তে আফগানদের লিড ২৭২ রানের। আসগর আফগান আর ইব্রাহিম জারদানের চতুর্থ উইকেট জুটি একশ ছাড়িয়ে গেছে। পাত্তাই পাচ্ছেন না বাংলাদেশি বোলাররা।

প্রথম ইনিংসে ১৩৭ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে নামা আফগানিস্তান শুরুতেই বিপদে পড়েছিল। দলীয় মাত্র ৪ রানে তাদের দুই শীর্ষ ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। সৌজন্যে সাকিব আল হাসানের ঘূর্ণি। ইনিংসের প্রথম ওভারেই তৃতীয় বলে এলবিডাব্লিউ হন ইহসানুল্লাহ (৪)। পরের বলেই প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান রহমত শাহকে কট অ্যান্ড বোল্ড করেন সাকিব। হ্যাটট্রিকের সুযোগ থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

২৮ রানে তৃতীয় উইকেটের পতন হয় আফগানিস্তানের। হাসমতুল্লাহ শহিদীকে (১২) সৌম্য সরকারের তালুবন্দি করেন নাইম হাসান। ইব্রাহিম জারদান এবং আসগর আফগানের দৃঢ়তায় আর কোনো উইকেট না হারিয়ে ৫৬ রান তুলে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় সফরকারীরা।এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আসগর আফগান আর ইব্রাহিম জারদান মিলে ১০৭* রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন। দুজনেই তুলে নিয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি। ইব্রাহিম ৬৫* এবং আসগর ৫০* রানে অপরাজিত আছেন। আফগানদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১৩৫ রান।

এর আগে আফগানদের ৩৪২ রানের জবাবে ২০৫ রানেই অল-আউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। তৃতীয় দিনে বাংলাদেশের ইনিংসে যুক্ত হয় মাত্র ১১ রান। আফগানদের লিড ১৩৭ রানে। ৪৪ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করা মোসাদ্দেক হোসেন অপরাজিত থেকে যান ৪৮ রানে। আরেক পাশে তাইজুল ও নাঈম বিদায় নেন দ্রুত। আগের দিনের সফল দুই বোলার নবি ও রশিদ ভাগাভাগি করেছেন শেষ দুই উইকেট। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে রশিদ ৫ উইকেট নিয়েছেন ৫৫ রানে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা